গাইবান্ধায় ইমাম-ওলামা পরিষদের মিছিল থেকে আ. লীগের সম্মেলন মঞ্চে হামলা, ভাঙচুর

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

গাইবান্ধা জেলা শহরে বিশ্বনবী মুহাম্মদকে (সা.) কটূক্তির প্রতিবাদে ইমাম-ওলামা পরিষদের মিছিল থেকে পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন মঞ্চে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় হামলাকারীরা চেয়ার-টেবিল ও মাইক ভাঙচুর করাসহ বেশ কিছু ব্যানার-ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলে।

শুক্রবার (১০ জুন) জুম্মার নামাজের পর শহরের পৌর শহীদ মিনার এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। যদিও হামলার পরপরেই জড়িত সন্দেহে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ১৬ জনকে আটক করেছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে জুম্মার নামাজের পর শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে বিশ্বনবীকে কটূক্তির প্রতিবাদে মিছিল বের হয়। শহরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে বের হওয়া মিছিলটি কাচারী বাজার সমজিদের সামনে এসে সমাবেশ করে। কিন্তু সমাবেশস্থলের পাশেই শহীদ মিনার চত্ত্বরে পূর্ব নির্ধারিত পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন মঞ্চ থেকে মাইকের উচ্চ আওয়াজ আসে। এ সময় কিছু মিছিলকারী উত্তেজিত হয়ে মাইক বন্ধের দাবি জানায়। এক পর্যায়ে তারা মঞ্চে হামলা চালিয়ে মাইক, চেয়ার-টেবিল ও ব্যানার-ফেস্টুন ভাঙচুর করে।

এই হামলা-ভাঙচুর ঘটনার পর তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ জানিয়ে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে অওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। এ সময় হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ রঞ্জু বলেন, পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলন ভন্ডুল করতে আগে থেকেই পরিকল্পনা ছিল। সেই পরিকল্পনা মোতাবেক বিশ্বনবীকে কটূক্তির প্রতিবাদের মিছিলে অংশ নিয়ে হামলার ঘটনা ঘটানো হয়। এই হামলাকারীরা জামায়াত-শিবিরের নাকি ইসলামী কোনো দলের নেতাকর্মী তা তদন্ত করলে পুলিশ নিশ্চিত হতে পারবে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদুর রহমান জানান, হামলার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১৬ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে হামলার কারণ এবং জড়িত অন্যদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply