স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে হত্যায় একই পরিবারের ৭ জন কারাগারে

|

রাজবাড়ী প্রতিনিধি
রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে আকাশ মোল্লা (১৪) নামের এক ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা মামলায় একই পরিবারের সাতজনকে গ্রেফতারের পর কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (১৫ মে) দুপুরে তাদের গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করা হলে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন রাজবাড়ীর এক নম্বর আমলী আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আরিফুজ্জামান।

একই পরিবারের ১০ আসামির মধ্যে কারাগারে যাওয়া ৭ জন হলেন, বালিয়াকান্দি সদর ইউনিয়নের পাইককান্দি গ্রামের নুরুল আমিন বিশ্বাসের ছেলে মাসুক বিশ্বাস (১৮) ও তার স্ত্রী সোহেলী সুলতানা (৪৫), নুরুল আমিনের ভাই রুহুল আমিন বিশ্বাসের স্ত্রী পারভীন বেগম (৪৫) এবং দুই ছেলে রাকিবুুল হাসান পারভেজ (৩০) ও রানা বিশ্বাস (২২), রাকিবুল হাসান পারভেজের স্ত্রী নাজমুন নাহার (১৮) ও নুরুল আমিনের অপর ভাই মেহেদী হাসান বিশ্বাসের ছেলে ছামি বিশ্বাস (১৫)।

উল্লেখ্য গত সোমবার (১৪ মে) বিকেলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বালিয়াকান্দি সদর ইউনিয়নের পাইককান্দি গ্রামের মশিয়াল মোল্লার ছেলে ও বালিয়াকান্দি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র আকাশকে ধারালো বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ওইদিন রাতেই আকাশের মা মনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে দশ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৮-১০ জনকে আসামি করে বালিয়াকান্দি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বালিয়াকান্দি থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) কায়সার হামিদ জানান, মামলায় নাম উল্লেখ করা এক পরিবারের ১০ আসামির মধ্যে সাত জনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বাকি তিন আসামির মধ্যে নুরুল আমিন বিশ্বাস (৫০) পুলিশের হেফাজতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এছাড়া, নুরুল আমিন বিশ্বাসের বড় ছেলে ইমরুল কায়েস অপু (২২) ও ভাই নওশের আলী বিশ্বাসের ছেলে মুনতাছির ইবনে তপু (২৫) পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।









Leave a reply