ভোটগ্রহণ শেষ, ফলাফলের অপেক্ষায় খুলনাবাসী

|

শেষ হলো খুলনা সিটি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ। কেন্দ্রে কেন্দ্রে কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হবে গণনা। সকাল ৮টা থেকে শুরু ভোটের সময় অনিয়মের অভিযোগে ১টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। সাময়িকভাবে স্থগিত ২টি কেন্দ্রে পরে আবার ভোট নেয়া হয়েছে। ভোটের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ বলে মনে করেন নৌকার মেয়র প্রার্থী। তবে বিএনপির প্রার্থী পোলিং এজেন্ট বের করে দেয়াসহ কিছু অনিয়মের অভিযোগ করেছেন।

ভোট যেন উৎসবেরই প্রতিচ্ছবি। খুলনা নগর জুড়েই এখন চলছে সে উৎসব। সকাল আটটার আগেই কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটারদের লম্বা লাইন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে উপস্থিতি বেড়েছে। এমন পরিবেশে ভোট দিয়ে সন্তুষ্ট ভোটাররা। কড়া রোদ- ভ্যাপসা গরম। সবকিছু উপেক্ষা করে নগরপিতা আর পছন্দের কাউন্সিলর নির্বাচনে কেন্দ্রে কেন্দ্রে নারী ভোটারদের উপস্থিতি চোখে ছিল পড়ার মতো। কিছু কেন্দ্রে ভোট গ্রহণে বিলম্বের অভিযোগ করেন ভোটাররা।

ভোটের সামগ্রিক পরিবেশ-পরিস্থিতিতে সন্তুষ্ট নির্বাচন কর্মকর্তারাও। নির্বাচন কমিশনের যুগ্মসচিব আব্দুল বাতেন বলেন, সামগ্রিকভাবে সুষ্ঠু ভোট হয়েছে। কোথাও বড় ধরনের বিশৃঙ্খলার অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

সকাল-সকাল ভোট দেন নৌকার প্রার্থী তালুকদার খালেক। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সন্তোষ জানিয়ে জনরায় মেনে নেয়ার ঘোষণা দেন তিনি। অন্যদিকে, ধানের শীর্ষের মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু কয়েকটি কেন্দ্র থেকে তার পোলিং এজেন্টকে বের করে দেয়ার অভিযোগ করেন।

দুটো কেন্দ্রে ভোট নেয়া হয়েছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে। তরুণদের মাঝে বাড়তি আগ্রহ যেমন আছে ইভিএম নিয়ে, বয়সীরা তেমনি সমস্যার কথাও বলেছেন।

নির্বাচনী আমেজে নিয়েই সমাপ্ত হলো ভোটগ্রহণ। এখন ফলাফলের অপেক্ষায় খুলনাবাসী।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply