চলন্ত বাসে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিলো চালক, লাফিয়ে পড়ে রক্ষা (ভিডিও)

|

চট্টগ্রামে চলন্ত বাসে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণচেষ্টার ৫ দিন পর ধরা পড়েছে অভিযুক্ত বাস চালক ও হেলপার। আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তাদের। নিজেকে বাঁচাতে চলন্ত বাস থেকে লাফ দিয়ে গুরুতর আহত হয়েছিলেন ওই তরুণী। হাসপাতালে ৫ দিন চিকিৎসা শেষে ফিরেছেন বাসায়।

গত ১৯ মে রাতে চট্টগ্রাম মহানগরীর রাহাত্তারপুল এলাকায় ঘটে এমন ঘটনা। সিসিটিভিতে লাফিয়ে পড়ার দৃশ্য স্পষ্ট দেখা যায়। ভুক্তভোগী ওই তরুণী সিঅ্যান্ডবি এলাকার একটি গার্মেন্টসের কর্মী।

তরুণীর দাবি, প্রতিষ্ঠানের বাসে করে কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরছিলেন তিনি। পথে সবাই নেমে গেলে একা পেয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান বাস চালক টিপু। তখন গাড়ি চালাচ্ছিলের সহকারী জনি দাস। তখন নিজেকে বাঁচাতে চলন্ত বাস থেকে লাফ দেন ২০ বছর বয়সী ওই তরুণী।

মাথায় আঘাত পেয়ে অজ্ঞান অবস্থায় ৫ দিন চিকিৎসাধীন ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সুস্থ হওয়ার পর বাকলিয়া থানায় মামলা করেন ওই তরুণী। এরপর হাটহাজারির কুয়াইশ থেকে বাসটির চালক ও সহকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সিএমপির বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাশেদুল হক বলেন, গতকালকে মেয়েটি যখন হাসপাতাল থেকে বাসায় চলে আসে তখনই আমি আমার নারী সাব ইন্সপেক্টর ও এসি স্যারসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। প্রথমদিকে সে কোনোকিছু শেয়ার করতে চায়নি। কিন্তু পরবর্তীতে আমরা তাকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি।

সিএমপির ডিসি (সাউথ) জসীম উদ্দিন বলেন, আইনি সহায়তা পাওয়ার ক্ষেত্রে আমরা গার্মেন্টস কর্মীদের আশ্বস্ত করতে চাই। এমন ঘটনা ঘটলে নিজেদেরও সচেতন থাকতে হবে আর কোনোকিছু ঘটলে আমাদের তথ্য দিবেন। আমরা এর যথাযথ ব্যবস্থা নিব।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply