কমোডিটিজ প্রতিষ্ঠানের নামে প্রতারণার অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন সাকিব আল হাসান

|

ব্যবসায়িক পার্টনারের কথা বলে সাকিবের তারকাখ্যাতি বিক্রি করছেন রাশেক রহমান। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে অবৈধভাবে করছেন কমোডিটি ব্যবসা। বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসা এমন অভিযোগের জবাবে অবশেষে মুখ খুললেন সাকিব আল হাসান।

তারকা ইমেজ ব্যবহার করে দুটি কমোডিটিজ প্রতিষ্ঠানের নামে প্রতারণার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন দেশ সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। প্রতিষ্ঠান দুটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেক রহমানকে সাথে নিয়ে তিনি জানালেন, আইন মেনেই ব্যবসা করছেন তারা। প্রয়োজনীয় অনুমোদন থাকায় এ ব্যাপারে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনেরও কোনো আপত্তি নেই।

বুধবার (২৫ মে) সন্ধ্যায় বনানীর একটি ফ্যাশন আউটলেটে সাকিব বলেন, প্রতিষ্ঠান দুটি স্টক এক্সচেঞ্জের অনুমোদন পেয়েছে, তাই এখন আর কোনো প্রশ্ন থাকা উচিৎ নয়। সাকিব বলেন, আমরা যেহেতু সব প্রমাণ দিয়েছি, তারাও জানিয়েছেন যে সব কিছু সন্তোষজনক। তাহলে এখানে তো আর কোনো কিছু বলার প্রশ্নই আসে না।

প্রতিষ্ঠান দুটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেক রহমানও ছিলেন সাকিবের সাথে। তিনি দাবি করেন, সিকিউরিটি এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন তদন্ত করে নিশ্চিত হয়েছে, এ বিষয়ে আইনের কোনো ব্যত্যয় হয়নি। বুরাক কমোডিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেক রহমান বলেন, আমরা তাদেরকে বলেছিলাম যে, আমরা বৈধভাবে ব্যবসা করছি। প্রয়োজনীয় যেসব অনুমতি দরকার সেগুলোও আমাদের আছে। তারা তদন্ত ও কমিশনের মিটিং করে সন্তষ্ট হয়েছেন এবং বলেছেন যে আমরা এখানে আইন বহির্ভূতভাবে কিছু করছি না।

সাকিব বলেন, কোনো বিতর্ক হলে জনগণ সে বিষয়ে জানতে চাইতেই পারে। তিনি সেটি পরিষ্কার করেছেন এবং তার ওপর জনগণের আস্থা বহাল আছে।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply