কিস্তি থেকে বাঁচতে ও প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতেই স্ত্রী-সন্তানদের হত্যা করে গিয়াস

|

সংবাদ সম্মেলনে চাঞ্চল্যকর থ্রি মার্ডার সম্পর্কে ব্রিফ করেছেন নরসিংদী পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার এনায়েত হোসেন মান্নান।

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী:

নরসিংদীর বেলাবোতে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যার ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মূলত, কিস্তির টাকা থেকে বাঁচতে ও জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতেই স্ত্রী ও দুই সন্তানসহ মোট ৩ জনকে হত্যা করে ঘাতক গিয়াস উদ্দিন শেখ।

মঙ্গলবার (২৪ মে) দুপুরে নরসিংদী পিবিআই কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য জানান পিবিআই এর পুলিশ সুপার এনায়েত হোসেন মান্নান।

তিনি জানান, স্ত্রীকে হত্যা করে ঋণের টাকা থেকে বাঁচতে এবং জমি নিয়ে বিরোধ থাকা প্রতিবেশীকে ফাঁসানোর ভাবনা থেকেই প্রথমে স্ত্রী রহিমা বেগম ও পরে দুই সন্তানকে হত্যা করে ঘাতক গিয়াস উদ্দিন।

এর আগে, গত রোববার (২২ মে) সকালে নরসিংদীর বেলাবো উপজেলার বাবলা গ্রামের গিয়াস উদ্দিন শেখ এর নিজ বাড়ি থেকে তার স্ত্রী রহিমা বেগম (৩৬), ছেলে রাব্বি শেখ (১২) ও মেয়ে রাকিবা শেখ (৭) এর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় রোববার বিকেলেই গৃহকর্তা গিয়াস উদ্দিন শেখকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করলে গিয়াস উদ্দিন ৩ জনকে হত্যার বর্ণনা দিয়ে দায় স্বীকার করেন।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার এনায়েত হোসেন মান্নান জানান, অভিযুক্ত গিয়াস উদ্দিন শেখ জুয়ায় আসক্ত ছিলেন। জুয়ায় ক্ষতিগ্রস্থ হওয়া ছাড়াও তিনি একাধিক এনজিও থেকে স্ত্রীর নামে প্রায় ১০ লাখ টাকা ঋণ নেন। এজন্য তাকে সব মিলিয়ে প্রতি মাসে ২২-২৩ হাজার টাকা কিস্তি দিতে হতো। যার নামে ঋণ তিনি মারা গেলে ঋণের টাকা মাফ হয়- এমনটাই ধারণা ছিলো গিয়াস উদ্দিনের। অপরদিকে, পাশের বাড়ির রেনু মিয়া নামে একজনের সাথে তার জমি সংক্রান্ত বিরোধও ছিল।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply