শিষ্য কিম বহন করলেন গুরুর কফিন

|

ছবি: সংগৃহীত

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন। রোববার (২২ মে) ছিল কিমের গুরু হিসেবে পরিচিত সামরিক বাহিনীর মার্শাল হিউন চোল হায়ের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া। সেখানে গুরুর কফিন বইলেন কিম। নিয়ে যান গোরস্তানেও।

প্রতিরক্ষা বাহিনীর কুচকাওয়াজ আর শ্রদ্ধার মাধ্যমে বর্ষিয়ান সামরিক কর্মকর্তাকে জানানো হয় শেষ বিদায়। শোকস্তব্ধ কিম নিজেই করেন প্রিয় শিক্ষককে সমাধিস্ত। যা গোটা বিশ্বেই বিরল ঘটনা।

২০১১ সালে ক্ষমতায় বসার আগে হিউন চোল দিয়েছিলেন কিম জং উনকে রাজনৈতিক দীক্ষা। একজন শক্তিশালী নেতা হিসেবে তাকে গড়ে তোলার পেছনেও ছিলো এই সেনা কর্মকর্তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।

আরও পড়ুন: হিটলারের শাসনের চেয়েও নিকৃষ্ট মোদি সরকারের কার্যক্রম: মমতা

অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় মাস্ক পরা ছাড়াই উপস্থিত ছিলেন কিম। যদিও এই মাসের শুরুতেই তার দেশে করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট আঘাত হেনেছে বলে স্বীকার করে কিম প্রশাসন। সে সময় মাস্ক পরে সরকারি দায়িত্ব সারতে দেখা গেছে তাকে।

এদিকে, সোমবার উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় মিডিয়া বলেছে, এ পর্যন্ত দেশটির প্রায় ২৮ লক্ষ মানুষ এক অজ্ঞাত জ্বরের কারণে অসুস্থ হয়েছে। এপ্রিলের শেষের দিক থেকে যার মধ্যে মাত্র ৬৮ জন মারা গেছে।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply