ধ্বংসস্তূপ থেকে দাঁড়িয়ে লিটন-মুশফিকের শতরান পেরোনো জুটি

|

ছবি: সংগৃহীত

লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিমের ব্যাটিং নিয়মিতভাবেই অক্সিজেনের যোগান দিচ্ছে বাংলাদেশের ইনিংসে। মিরপুরে সকালে আধঘণ্টার মধ্যেই মাত্র ২৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে খাদের কিনারায় পৌঁছে যাওয়া বাংলাদেশ এখন পাল্টা আক্রমণ করতে পারছে এই দুই ব্যাটারের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে। লিটন ও মুশফিক দু’জনই পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি। আর তাদের জুটি অতিক্রম করেছে শতরান। শেষ খবর পর্যন্ত বাংলাদেশের রান ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪৫।

কাসুন রাজিথা ও আসিথা ফার্নান্দোর বোলিং তোপে যখন কাঁপছে টাইগার ব্যাটিং লাইনআপ, তখন ক্রিকে আসেন লিটন দাস। ওপর প্রান্তে থাকা মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে তিনি শুরু করেন পাল্টা আক্রমণ। এই দুই ব্যাটারের সাবলীল ব্যাটিংয়ে লঙ্কান বোলাররা কিছুটা হলেও হারিয়েছে লাইন লেংথের ওপর নিয়ন্ত্রণ। প্রায় প্রতি ওভারেই বাজে ডেলিভারি এসেছে; তার তাকে যথাসাধ্য শাস্তি দেয়ার ক্ষেত্রেও নির্দয় ছিলেন লিটন-মুশফিক। তাই চাপও জেঁকে বসতে পারেনি এই দুই ব্যাটারের কাঁধে। বরং লিটন দাসকে একের পর শর্ট ডেলিভারি দিয়ে ফাঁদে ফেলার চেষ্টা করেছে লঙ্কান পেসাররা। এই পরিকল্পনা আদতে বুমেরাং হয়েছে তাদের জন্য। কারণ, এ পর্যন্ত করা ৬৫ রানের মাঝে ৬০ শতাংশ রানই লিটন করেছেন লেগ সাইড দিয়ে। অবশ্য জীবন পেয়েছেন দু’জনই। আর লিটন ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন শর্ট ডেলিভারকে পুল করতে গিয়েই। আবার পায়ের দুর্দান্ত ব্যবহারে লঙ্কান স্পিনার প্রাভিন জয়াবিক্রমাকে অনায়াসেই সামলাচ্ছেন মুশফিক। আর রমেশ মেন্ডিসের ৪ ওভারে ২২ রানের বোলিং ফিগার অনেকটাই লিটন দাসের অবদান

এর আগে, মিরপুর টেস্টের প্রথম আধঘণ্টায় ছিল লঙ্কান পেসারদের আধিপত্য। রাজিথা ও আসিথার বোলিং তোপে মাত্র ২৪ রানেই ৫ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। রানের খাতা খোলার আগেই ফিরেছেন মাহমুদুল হাসান জয়, তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। ৮ ও ৯ রান করেছেন যথাক্রমে শান্ত ও মুমিনুল। টেস্টের প্রথম ঘণ্টায়ই ব্যাকফুটে চলে যাওয়া টাইগার ইনিংস এখন হাঁটছে প্রথম টেস্টে দারুণ ব্যাট করা লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিমের হাত ধরে। লঙ্কান পেসারদের জুজু দূর করে অবিচ্ছিন্ন জুটিতে এই দুই ব্যাটার তুলেছেন ১২১ রান। লিটন ৬৬ এবং মুশফিক ব্যাট করছেন ৬০ রান নিয়ে।

আরও পড়ুন: উইন্ডিজ সিরিজে লাল বলে দেখা যাবে মোস্তাফিজকে; ৩ বছর পর দলে বিজয়

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply