পঞ্চগড়ে সমতল ভূমির চা পাতার দাম কমছে, দুশ্চিন্তায় চাষি-শ্রমিকরা

|

চায়ের পাতা তুলছেন চা শ্রমিক।

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম চা অঞ্চল পঞ্চগড়ে সমতল ভূমিতে চায়ের আবাদ বাড়লেও কাঁচা পাতার কাঙ্ক্ষিত মূল্য মিলছে না। এতে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন হাজার হাজার চাষি। ন্যায্য মূল্যের দাবিতে চলছে আন্দোলন। চাষিরা আঙ্গুল তুলছেন কারখানা সিন্ডিকেটের দিকে। আর কারখানা কর্তৃপক্ষ বলছে নিয়ম মেনে পাতা সংগ্রহ করতে ব্যর্থ চাষিরা। তাই মান অনুযায়ী কমছে দর।

বাগান সংশ্লিষ্টরা জানান, এবারের মৌসুমের শুরুতে কারখানা মালিকরা প্রতি কেজি কাঁচা চা পাতা ২২ থেকে ২৬ টাকায় কিনেছিলেন। হঠাৎ দাম কমিয়ে ১২ থেকে ১৪ টাকা কেজি দরে কিনছেন তারা। অভিযোগ, কারখানা মালিকরা সিন্ডিকেট করে দাম কমিয়ে দিয়েছেন। এতে লাভ তো দূরের কথা, উঠছে না উৎপাদন খরচ। গুনতে হচ্ছে লোকসান। চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন হাজার হাজার চা চাষী, দুর্ভোগে শ্রমিকরাও। বলছেন, কৃষক ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় মজুরি কমছে তাদেরও। তাই পঞ্চগড়ে তৈরি চায়ের নিলাম বাজার স্থাপনের দাবি জানান শ্রমিকরা।

এদিকে, কারখানা কর্তৃপক্ষের দাবি, মান অনুযায়ী দর হারাচ্ছেন চাষিরা। নিয়ম মেনেই কিনছেন পাতা। তেঁতুলিয়ার গ্রীন কেয়ার টি কারখানা ম্যানেজার মো. মঞ্জুর আলম মঞ্জু বলেন, চা বলতে মূলত দু’টি পাতা একটি কুড়ি বোঝায়। ক্ষেত্রবিশেষে তিনটি পাতার দরকার আছে। কিন্তু চাষিরা সাড়ে চার, সাড়ে পাঁচ পাতা আনেন। এতেই দাম কমে যায়।

চা-পাতার দাম নিয়ে জরুরি সভা ডাকা হয়েছে বলে জানালেন জেলা প্রশাসক মো: জহুরুল ইসলাম। বলেন, চাষিদের স্বার্থ আমাদের কাছে সবার আগে। তাই সে বিষয়টি মাথায় রেখে সভায় একটি সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। গত বছর পঞ্চগড়ে রেকর্ড এক কোটি ৪৫ লাখ চা উৎপাদন হয়। এর ফলে সিলেটের পর দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম চা উৎপাদনকারী অঞ্চল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে উত্তরের এই জনপদ।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply