ফেনসিডিল সেবনের পর অভিযানের খবর শুনে পালাতে গিয়ে সাবেক চেয়ারম্যানের মৃত্যু

|

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আকন্দবাড়িয়া গ্রামে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়েছে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর। এ সময় অভিযানের খবর শুনে ফেনসিডিল সেবন করে পালানোর সময় স্ট্রোক করে জাকারিয়া আলম (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জাকারিয়া আলম আলমডাঙ্গা উপজেলার বড় গাংনী গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে ও গাংনী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, বিকেলে আকন্দবাড়িয়া গ্রামের রায়পাড়া মাঠ থেকে দৌড়ে মুচিপাড়ায় হাসান আলীর বাড়ির সামনে রাস্তায় এসে পড়ে যান জাকারিয়া। এ সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। আশপাশের লোকজন ছুটে এসে মাথায় পানি ঢালা শুরু করলে কিছুক্ষণের মধ্যেই মারা যান তিনি। পরে খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয় পুলিশ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন জানান, বিকেলে আকন্দবাড়িয়া গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী মাসুরা খাতুনের বাড়িতে ফেনসিডিল সেবন করতে যান জাকারিয়া আলমসহ ৩ জন। ফেনসিডিল খাওয়ার একপর্যায়ে মাসুরার বাড়িতে অভিযান চালায় জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের একটি টিম। অভিযানের খবর পেয়ে পালিয়ে যান জাকারিয়াসহ ৩ জন। দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন জাকারিয়া। পরে স্ট্রোক করে মারা যান তিনি।

জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আজ বিকেলে আকন্দবাড়িয়া গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী মাসুরা খাতুনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দুই বোতল ফেনসিডিলসহ তাকে আটক করা হয়। পরে দর্শনা থানায় সোপর্দ করে তার বিরুদ্ধে একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। তবে ওই সময় কেউ পালিয়ে গিয়ে মারা গেছে কিনা জানা নেই।

এ বিষয়ে দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএইচএম লুৎফুল কবীর জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়া হয়। সুতরহাল প্রতিবেদন শেষে কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply