মাদক ব্যবসা ছাড়ায় টুপি-জায়নামাজ উপহার দিল পুলিশ, এখন তারা তাবলীগে

|

স্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ

বছরের অন্য সব শনিবারের থেকে মে মাসের দ্বিতীয় শনিবারের সকালটি তাদের কাছে ছিল ছিল অন্যরকম। এতদিন ছিলেন মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। আর আজ শনিবার পুলিশের সহায়তায় মাদক ব্যবসা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছেন। ফিরে পেয়েছেন নতুন জীবন। শুরু করেছেন ধর্মকর্মও। এতদিন ক্ষুব্ধ থাকলেও নতুন জীবনে ফেরায় এলাকাবাসীও স্বাগত জানিয়েছেন তাদের।

যাদের কথা বলা হচ্ছে তারা হলেন গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের পশ্চিম মাঝিগাতি গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী মোঃ মিজানুর রহমান(৬০), একই গ্রামের রুবিয়া বেগম(২৮), মোঃ সোহেল সেখ (৩০) ও সোহাগী বেগম (২২)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এরা ৪ জন দীর্ঘদিন যাবত মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলো। পুলিশ একাধিক বার তাদের গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে ফের মাদক ব্যবসা শুরু করতেন তারা।

মোঃ মিজানুর রহমান (৬০) বলেন, পেটের দায়ে এতো দিন খারাপ কাজ করেছি। ওসি সাহেবের উদ্যোগে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আর এ খারাপ ব্যবসা করবো না। বাকী জীবন ধর্মকর্ম করবো। এতে আর কেউ আমাদের খারাপ চোখে দেখবে না। যারা এ ব্যবসায় জড়িত তাদেরকেও তিনি তা ছেড়ে ভাল পথে আসার আহবান জানান।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আজিজুর রহমান জানিয়েছেন, আমি ব্যক্তিগতভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করি এদের মাদক ব্যবসা ছাড়ানোর জন্য। এরপর এদের সাথে যোগাযোগ করি ও কাউন্সিলিং করি। এক পর্যায়ে এরা মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিতে রাজি হন।

তিনি আরো বলেন, গতকাল শুক্রবার রাতে ওই চার মাদক ব্যবসায়ীকে নিয়ে স্থানীয়দের সাথে আলোচনায় বসি। তারা সকলের সামনে তওবা করে মাদক ব্যবসা ছেড়ে দেবেন বলে সিদ্ধান্তের কথা উপস্থিত সকলকে জানান। পরে তাদের জায়নামাজ, টুপি, পাঞ্জাবি, তজবি, লুঙ্গী, শাড়ী ও কিছু নগদ টাকা দেয়া হয় উপহার দেয়া হয়।

এসময় মহেশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। আজ শনিবার থেকে পুরুষরা তবলীগে জামায়াতে যোগ দিয়েছেন।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজিজুর রহমান তাদের হাতে হস্তান্তর করছেন উপহার সামগ্রী









Leave a reply