৫৫ বছর বয়সে ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা দিচ্ছেন বেলায়েত

|

বেলায়েত শেখ।

৫৫ বছর বয়সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় বসতে যাচ্ছেন বেলায়েত শেখ। রীতিমতো হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আলোচনায় সরগরম বেলায়েতকে নিয়ে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা বিভাগে পড়তে চান তিনি। তাই মনপ্রাণ দিয়ে এখন কেবলই বইয়ের পাতায় চোখ বুলিয়ে কাটছে তার দিন।

গাজীপুরের শ্রীপুরের মাওনা চৌরাস্তা এলাকায় থাকেন বেলায়েত শেখ। পঞ্চাশোর্ধ এই ব্যক্তি এইচএসসি পাস করে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিলেন। এখন নিচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রস্তুতি। তাই আবারও আলোচনার কেন্দ্রে তিনি।

বেলায়েত বলেন, প্রথমে ভয় পেতাম। পড়া মুখস্ত হয় কিনা তা নিয়েও দুশ্চিন্তা ছিল। কিন্তু এখন আমার মনে সাহস এসেছে। আমার সাথে কোনো তরুণও আর পারবে না, এমন জোর এসেছে বুকে।

বেলায়েতের বয়স এখন ৫৫ হলেও ভেতরটা একদমই তরুণ। একসময় স্বপ্ন ছিল নিজে বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা নেবেন। তবে তা আর হয়ে ওঠেনি। তিন সন্তান দিয়েও পূরণ হয়নি সেই লালিত স্বপ্ন। তাই শেষমেষ এ বয়সে আবারও শুরু করেন লেখাপড়া। ২০১৯ সালে এসএসসি এবং ২০২১ সালে এইচএসসি পাশ করেন বেলায়েত।

পেশায় সংবাদকর্মী বেলায়েত চান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে পড়তে। লেখালেখির চর্চার পাশাপাশি করতে চান শিক্ষকতা। শিক্ষানুরাগী বেলায়েতের অব্যাহত প্রচেষ্টায় মুগ্ধ তার পরিবার-স্বজনরা। সমালোচকদের মুখে ছাই ঢেলে দিয়েছে তার একাগ্র প্রচেষ্টা। স্বপ্ন পূরণে কঠোর পরিশ্রমের পাশাপাশি সাহস আর দৃঢ় মানসিকতাকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন বেলায়েত শেখ।

বেলায়েত বলেন, আমার মৃত্যুর পরে যেনো এসব সার্টিফিকেটের কপি কবরে দিয়ে আসে সেটি বলেছি পরিবারকে। আর এগুলোর মূল কপিগুলো যেনো আমার পরবর্তী প্রজন্ম এসে দেখে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply