৯টি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সম্মাননা পেলো রায়হান শশীর ডেজা ভু

|

ডেজা ভু'র একটি দৃশ্য।

মাত্র একফোঁটা পানি থেকেই জীবনের সৃষ্টি, সুতরাং জীবন একটা সমুদ্র। জীবন সমুদ্রের তীরে বসে যদি কেউ নিজের অতীতের সমস্ত হিসেব টানে তবে মিলে যাবে ভবিষ্যতের সব অংক। কিন্তু খোদ সমুদ্রই তো এখন আক্রান্ত। তিন ভাগ জল আর এক ভাগ স্থলের এই পৃথিবীতে সমুদ্র যদি কখনও প্রতিশোধ নেয় তবে আমরা যাবো কোথায়? এমন দর্শন আর প্রেক্ষাপট নিয়েই নির্মিত হয়েছে রায়হান শশীর মুক্ত দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ডেজা ভু। এখন পর্যন্ত ৯টি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের লোগো লেগেছে ‘ডেজা ভু’ পোস্টারে।

নিজের এই মুক্ত দৈর্ঘ্যের সিনেমা নিয়ে যমুনা নিউজের সাথে নিজের অনুভূতি জানাতে গিয়ে রায়হান শশী বলেন, ডেজা ভু চলচ্চিত্রের প্রধান প্রতিপাদ্য বিষয়গুলোর অন্যতম এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ‘নারী ভোগ দখলের জন্য নয়। নারী, পুরুষের চেয়েও বেশি একজন মানুষ। অপর বিষয়টি হচ্ছে তিন ভাগ জল এবং একভাগ স্থলের এই পৃথিবী আর সমূদ্রকে মানুষ যেভাবে দূষিত করছে, যদি কোনো দিন সমুদ্র মানুষের ওপর প্রতিশোধ নেয় তখন মানুষ কোথায় যাবে?

পরিচালক রায়হান শশী জানান, চলচ্চিত্র নির্মাতাদের কাছে দাদা সাহেব ফালকে অ্যাওয়ার্ড পাওয়া নিঃসন্দেহে সম্মানজনক ব্যাপার। ১২তম দাদা সাহেব ফালকে ২০২২ চলচ্চিত্র উৎসবে ডেজা ভু পেয়েছে অনারেবল জুরি মেনশনড অ্যাওয়ার্ড। এছাড়া কান চলচ্চিত্র উৎসবে ডেজা ভু জিতেছে বেষ্ট ফিলোসফিক্যাল ফিল্মের অ্যাওয়ার্ড।

শুধু এ দুটিই নয় জাপান-ভারত আয়োজিত হোয়াইট ইউনিকর্ন ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল থেকে স্পেশাল জুরি অ্যাওয়ার্ড, স্পেনের এলগ্রিত দি লস সিন ভয চলচ্চিত্র উৎসব থেকেও পেয়েছে স্পেশাল জুরি অ্যাওয়ার্ড।

সম্প্রতি ২১টি দেশের চলচ্চিত্রের প্রতিযোগিতার মাঝে অফিশিয়াল সিলেকশনসহ, বেস্ট ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড নমিনির সম্মান পেয়েছে আমেরিকার ইন্ডি শর্ট ফেস্ট লস এঞ্জেলস ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’ থেকেও। অফিশিয়াল সিলেকশন পেয়েছে করনাটক ইয়ুথ ইন্টারন্যাশনাল শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভালে।

এছাড়াও অফিশিয়াল সিলেকশন পেয়েছে লিফট অব গ্লোবাল নেটওয়ার্ক ফিল্ম ফেস্টিভাল, ফার্স্ট টাইম ফিল্ম মেকার সিজন ২০২২, ফোর্থ স্ক্রিন অনলাইন ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড প্রভৃতি চলচ্চিত্র উৎসবগুলো থেকে।

প্রসঙ্গত, ডেজা ভু নির্মাণ করেছে উড়ুপ ট্রুপ প্রোডাকশন। প্রযোজনা করেছেন ফারাহ নাজ আলম। ডেজা ভু’র গল্প, সংলাপ, চিত্রনাট্য, পরিচালনা ও সম্পাদনা করেছেন রায়হান শশী। চিত্র গ্রাহক ছিলেন সাঈদ মুস্তাকিম অনিক, প্রোডাকশন ডিজাইনার হাসান অয়ন এবং সহযোগী পরিচালক ছিলেন তন্ময় সুর্য্য। সহকারী শিল্প নির্দেশনায় ছিলেন তৌফিক তুয়ান আর দ্বিতীয় ক্যামেরায় ছিলেন প্রদীপ্ত সাহা।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply