রাশিয়ান ‘সস্তা তেল’ চুপিসারে কিনছে চীন

|

ছবি: সংগৃহীত

অনেকটা চুপিসারেই দর কষাকষি করে রাশিয়ার ‘সস্তা তেল’ কেনা বাড়িয়ে দিয়েছে চীন। জাহাজ হতে প্রাপ্ত তথ্য এবং তেল ব্যবসায়ীদের বরাত দিয়ে রয়টার্সে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর পর পশ্চিমা ক্রেতারা রাশিয়া থেকে তেল কেনা কমিয়ে বা বন্ধ করে দেয়ার ফলে যে শূন্যস্থান সৃষ্টি হয়েছে তা ভরাট করছে চীন।

প্রথম ধাপে রাশিয়া থেকে তেল আমদানি করা কমিয়ে দেয় চীন। প্রকাশ্যে মস্কোকে সমর্থন দেয়ার কারণে চীনের বৃহৎ তেল কোম্পানিগুলো আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হয় কিনা, এই শঙ্কায় রাশিয়া থেকে তেল আমদানি কমানোর ঘোষণা আসে বেইজিং থেকে। তবে এই ঘোষণার মাসখানেক পরেই দেখা গেলো, রাশিয়ার তেল কিনছে চীন।

ভোরটেক্সা অ্যানালিটিক্সের দেয়া তথ্য অনুসারে, চলতি মে মাসে রাশিয়া থেকে তেল আমদানির ক্ষেত্রে নতুন রেকর্ড গড়েছে চীন। মে মাসেই দিনপ্রতি ১.১ মিলিয়ন ব্যারেল তেল আমদানি করছে চীন। যা এ বছরের প্রথম তিন মাসে গড়ে ছিল দিনপ্রতি সাড়ে ৭ লাখ ব্যারেল। এমনকি ২০২১ সালেও রাশিয়া থেকে গড়ে ৮ লাখ ব্যারেল তেল আমদানি করেছিল চীন।

তেল সরবরাহকারী জাহাজের তথ্য অনুসারে রয়টার্স জানিয়েছে, এ সময়ে রাশিয়া থেকে তেল কিনেছে চীনের ইউনিপেক ও ঝেনহুয়া অয়েল। এশিয়ার সর্ববৃহৎ তেল পরিশোধনকারী কোম্পানি সিনোপেক করপোরেশনের বাণিজ্যিক শাখা হচ্ছে ইউনিপেক। আর ঝেনহুয়া চীনের প্রতিরক্ষা বাহিনীর কোম্পানি নরিনকোর অঙ্গপ্রতিষ্ঠান। ব্যবসায়ীরা বলছেন, এ ছাড়া সম্প্রতি রাশিয়া থেকে চীনে তেলের বড় সরবরাহকারী হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে হংকংয়ে নিবন্ধিত লিভনা শিপিং লিমিটেড। রাশিয়া থেকে তেল আমদানির সাথে জড়িত এই তিন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে রয়টার্স যোগাযোগের চেষ্টা করলেও সিনোপেক কথা বলতে চায়নি এবং ঝেনহুয়া ও লিভনা কোনো সাড়া দেয়নি।

আরও পড়ুন: ফিনল্যান্ডে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করেছে রাশিয়া

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply