তীব্র খাদ্য সঙ্কটে হুমকির মুখে শ্রীলঙ্কানদের জীবন

|

ছবি: সংগৃহীত

নানা সঙ্কটে দিশেহারা শ্রীলঙ্কানদের সামনে ঘোর অমানিশা। দেশটিতে রাজনৈতিক সঙ্কট চরমে পৌঁছেছে। ভেঙে পড়েছে অর্থনীতিও। এমন অবস্থায় দেশটিতে দেখা দিয়েছে তীব্র খাদ্য সঙ্কট। মুদ্রাস্ফীতির কারণে নিত্যপণ্যের দামও আকাশছোঁয়া। সুপার শপে ভিড় নেই, কারণ সেখানে দাম বেশি। একটু সস্তায় পণ্য পেতে বেশিরভাগ লঙ্কানই এখন ফুটপাতের ক্রেতা।

ফুটপাতে নিত্যপণ্য কিনতে আসা একজন লঙ্কান নাগরিক জানান, বাজারে শিশুখাদ্য নেই বললেই চলে। অনেক শিশুকেই তাই খাবার দিতে পারছেন না মায়েরা। চাল-তেলসহ সবকিছুর সঙ্কট দেখা দিয়েছে। আর সবকিছুর দাম তো আকাশছোঁয়া। তাই, কিছুটা কম দামে পণ্য পাওয়ার আশায় এই খোলা বাজারে এসেছি আমি।

এদিকে, সময়ের সাথে সাথে আরও প্রকট হচ্ছে জ্বালানি সঙ্কট। দিনের পর দিন লাইনে দাঁড়িয়েও রান্নার জন্য পাওয়া যাচ্ছে না তেল-গ্যাস।

লঙ্কান এক নাগরিক বলেন, তিনদিন ধরে এখানে গ্যাসের জন্য দাঁড়িয়ে আছি। শুনলাম আজ কুপন দেবে। তারা মোট ২’শ কুপন দিবে। কিন্তু এখানে ৫০০’র বেশি মানুষ গ্যাসের অপেক্ষায় আছে। জানি না, গ্যাস পাবো কি না। কবে পাবো তাও জানি না।

শ্রীলঙ্কার আরেক বাসিন্দা বলেন- গ্যাস নেই, কেরোসিন তেল নেই। আমরা রান্না করবো কীভাবে? মরে যাওয়া ছাড়া আমাদের আর কোনো উপায় নাই। সে দিন খুব দূরে নয়, কিছুদিনের মধ্যেই লঙ্কানদের না খেয়ে মরতে দেখবে বিশ্ববাসী।

দ্বীপ রাষ্ট্রটিতে গেলো বছরের এপ্রিলে রাসায়নিক সার ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়। দেশটিতে এরপর থেকেই ব্যাপক হারে কমে যায় ফসল উৎপাদন। নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলেও উৎপাদন বাড়েনি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আরও শোচনীয় হবে শ্রীলঙ্কার অর্থনৈতিক পরিস্থিতি। আর তাই, আরও কয়েক মাস চলতে পারে এ খাদ্য সঙ্কট। সূত্র: আল জাজিরা।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply