নির্যাতনে ইটভাটা শ্রমিকের মৃত্যুর অভিযোগ, আটক ২

|

ছবি: আনোয়ার হোসেন

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে নির্যাতনের পর আনোয়ার হোসেন নামে এক ইটভাটা শ্রমিককে মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ স্থানীয় মেঘনা ইটভাটার মালিক খলিল মাঝি ও তার ভাই খবির মাঝিকে আটক করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন রামগতি থানার ওসি। এর আগে নির্যাতনের পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (১৮ মে) দিবাগত রাত ১২টার দিকে মারা যান ওই শ্রমিক। নিহত আনোয়ার উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের বাসিন্দা আব্দুস শহীদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শ্রমিক আনোয়ার খলিল মাঝির ভাই খবির মাঝির খাগড়াছড়ির একটি ইটভাটায় কাজ করতেন। চুক্তি অনুযায়ী ছয় মাস কাজ করার কথা ছিল। কিন্তু আনোয়ার ৫ মাস কাজ করেন। এর জের ধরে খবির মাঝি তার ভাই খলিল মাঝি, দুই ভাতিজা ইব্রাহিম ও রিয়াজ তাকে কয়েকবার ধরে এনে মারধর করে। গত ২ মে আনোয়ারকে মেঘনা ইটভাটায় ধরে নিয়ে আসে খলিল। এ সময় তার হাত পা বেঁধে বেধড়ক মারধর করে রক্তাক্ত করে। পরে পরিবারের লোকজন আনোয়ারকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও নোয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি করার পর অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। কিন্তু পারিবারিক অসচ্ছলতায় আনোয়ারকে বাড়িতেই চিকিৎসা দেন তারা। বুধবার রাতে ওই শ্রমিক তার নিজ বাড়িতে মারা যান। সকালে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

রামগতি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর জানান, এ ঘটনায় দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply