হাঁটু মুড়েই কেনো প্রেম প্রস্তাব দেয়া হয়? জেনে নিন পেছনের ইতিহাস

|

ছবি: সংগৃহীত।

বিয়ের প্রস্তাব হোক বা প্রেমের, ভালোবাসার মানুষ হাঁটু গেড়ে বসে মনের কথা জানাবে, এমনটিই প্রেমিক প্রকৃতির মানুষের স্বপ্ন থাকে। টেলিভিশন হোক বা বাস্তব জীবন, খেয়াল করলে দেখবেন সঙ্গী বাম পায়ের হাঁটু মুড়ে বসেই এই প্রস্তাব দিয়ে থাকেন। জানেন কি, এই হাঁটু গেড়ে বসে প্রেমের প্রস্তাব দেয়ার পেছনে একটি ইতিহাস আছে!

মূলত, এই হাঁটু মুড়ে বসে প্রেম প্রস্তাব দেওয়ার রীতি পাশ্চাত্য সংস্কৃতির অঙ্গ। মধ্যযুগে একে অপরের প্রতি সৌজন্য প্রকাশের উপর বেশি জোর দেয়া হত। বহু ধর্মীয় অনুষ্ঠানে হাঁটু মুড়ে বসার প্রথা ছিল। কখনও বশ্যতা বা কখনও সম্মান প্রদর্শনে এই রীতি ছিল জনপ্রিয়। মধ্যযুগে যোদ্ধাদের অন্যতম কর্তব্য ছিল ‘শিভ্যালরি’ অর্থাৎ সম্মান দেখানো। স্ত্রী, অভিজাত নারীদের সামনেও এ ভাবেই হাঁটু গেড়ে বসে শ্রদ্ধা ও ভালবাসা প্রকাশ করত তারা। হাঁটু মুড়ে বসে আজীবন ভালবাসার মানুষের বিশ্বাস বজায় রাখার প্রতিশ্রুতিই প্রকাশ করা হয় এই ভঙ্গিমার মাধ্যমে।

কিন্তু সব সময় বাম দিকের হাঁটু মুড়েই কেন প্রেম প্রস্তাব দেয়া হয়? এ নিয়ে নানা জনের নানা মত রয়েছে। তবে এর একটি যুক্তিসঙ্গ কারণ সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় উঠে এসেছে। গবেষণা বলছে, মূলত অধিকাংশ মানুষই ডানহাতি। যে হাতে মানুষ বেশি সক্রিয় এবং স্বচ্ছন্দ, পায়ের ক্ষেত্রে তার বিপরীত দিকের পা কাজের সময়ে সক্রিয় হয়ে যায়। ভালবাসার কথা জানানোর সময়ে ডান হাতে ধরা থাকে গোলাপ বা অন্য কোনো বিশেষ উপহার। ফলে হাতের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে গিয়ে এমনিতেই বাম পা মুড়ে যায়। তবে এর বিপরীতটি যে করা যাবে না তা নয়। আপনি চাইলে আপনার মতো করেই ভালোবাসার কথা জানাতে পারেন আপনার প্রিয়জনকে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply