পরিপক্ক হওয়ার আগেই লিচু পাড়ছেন মেহেরপুরের চাষিরা

|

মেহেরপুরের বাজারে উঠতে শুরু করেছে বিভিন্ন জাতের লিচু। তবে বৈরি আবহাওয়ার কারণে এ বছর ফলন কম বলছেন চাষীরা। যা উৎপাদন হয়েছে তার মধ্যেও পুড়ে নষ্ট হচ্ছে মৌসুমি এই ফল। পূঁজি হারানোর শঙ্কায় তাই সময়ের আগেই লিচু পাড়ছেন চাষীরা।

সদরসহ ৩ উপজেলায় রয়েছে বাগান। ধরেছে বোম্বাই, চায়না-থ্রিসহ বিভিন্ন জাতের লিচু। এর মধ্যে আগেভাগেই নামানো হচ্ছে আটি ও মোজাফ্ফরি জাতের লিচু। ব্যবসায়ীদের দাবি, এবার অনাবৃষ্টিসহ বৈরি আবহাওয়ার কারণে ফলন হয়েছে কম। আকারেও তুলনামূলক ছোট হয়েছে লিচু। এরই মধ্যে বাজারে উঠতে শুরু করেছে লিচু। দামটাও চড়া। অপরিপক্ক এই লিচুই কিনছেন অনেকে।

তবে এই লিচু নিয়ে উদ্বেগও রয়েছে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের। চিকিৎসকরা বলছেন, স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে এ ধরনের লিচু। মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. শরিফুল ইসলাম অপরিপক্ক লিচু খেলে কিছু স্বাস্থঝুঁকি থাকে। পরিপক্ক হওয়ার আগে এসব লিচুতে থাকতে পারে বিভিন্ন জীবানু। এছাড়া তৈরি হতে পারে পেটের পীড়া ও ফুড পয়জনিং। তাই খাওয়ার জন্য লিচু পরিপক্ক হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করার পরামর্শ তার।

আগেভাগেই লিচু নামাতে শঙ্কা রয়েছে ব্যবসায়িক ক্ষতির। তাই পরিপক্ক হওয়ার পরই বাজারজাতের পরামর্শ কৃষি বিভাগের। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মেহেরপুর জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা সামছুল আলম বলছেন, পরিপক্ক হওয়ার আগে পাড়লে এসব লিচুর স্বাদ কম হবে, তাই বাজারমূল্যও কমে যেতে পারে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্যমতে, চলতি বছর মেহেরপুরে ৬শ ৩০ হেক্টর জমিতে লিচুর আবাদ হয়েছে।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply