মেঘালয়ে ভারি বর্ষণে সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

|

মেঘালয়ে ভারি বর্ষণের কারণে সিলেটের বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। যার প্রভাব পড়েছে ৪ উপজেলায়। সারি ও গোয়াইন নদীর পানি কিছুটা কমলেও বেড়েছে সুরমা ও কুশিয়ারার। উজানে ভারতের আসাম ও মেঘালয়ে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় সোমবার (১৬ মে) নতুন করে বন্যাকবলিত ৬ উপজেলার নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ইতোমধ্যে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে জেলা সদরের সাথে বিভিন্ন উপজেলার সড়ক যোগাযোগ।

প্লাবিত ৬ উপজেলার নিম্নাঞ্চলের অনেক জায়গায় ঘরবাড়ি-দোকানপাট এমনকি সড়কেও জমেছে কোমর পানি। পানিবন্দি থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন সিলেটের জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, জকিগঞ্জ কানাইঘাটের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। যোগাযোগ ব্যবস্থা কোথাও বন্ধ, কোথাও চরম দুর্ভোগ। এর মধ্যে সাপ-খোপ ও পোকামাকড়ের ভয়ে প্লাবিত এলাকাবাসীর কাটছে নির্ঘুম রাত।

এর আগেই এপ্রিলের ঢলে হাওরের ধান হারিয়েছে কৃষক, আর এবারে ডুবলো উঁচু জমির ধান। বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের কর্মকর্তারা জানান, শিগগিরই এই ভোগান্তি কমছে না। ভোগান্তি কমাতে সিলেট সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে ৩টি ওয়ার্ডে ৪টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আর জেলা প্রশাসন এরই মধ্যে ত্রাণ তৎপরতা শুরুর কথা জানিয়েছে।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply