বাংলাদেশের নেয়া হাস্যকর যত রিভিউ

|

ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিন ২ বার ভুল রিভিউ নিয়েছে বাংলাদেশ। গত জানুয়ারিতেই ইতিহাসের সব থেকে হাস্যকর রিভিউ নেয়া নিয়ে সমালোচনার শিকার হতে হয়েছিল বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হককে। কিন্তু এরপরও দৃশ্যপটে পরিবর্তন আসেনি । পরিসংখ্যান বলছে, টেস্ট ক্রিকেটে রিভিউ ব্যর্থতায় সব থেকে এগিয়ে থাকা দলটার নাম বাংলাদেশ।

২০২২ সালের নিউজিল্যান্ড সফরটা মূলত আলোচিত মাউন্ট মঙ্গানুইতে বিজয়গাথার জন্য। সেই সঙ্গে আরও একটি ব্যাপার সেবার আলোচনায় এসেছিল। ইবাদাতের বলে রস টেইলরের বিরুদ্ধে নেয়া বাংলাদেশের একটি রিভিউ স্বীকৃতি পেয়েছিল ইতিহাসের সব থেকে হাস্যকর রিভিউ হিসেবে।

হাস্যরস আরও আগেও হয়েছে। ভারত সফরে ভিরাট কোহলির একটা ডিফেন্সকে চ্যালেঞ্জ করে বসেন মুশফিক। এই ঘটনায় হাসতে থাকেন ভিরাট। ফলাফলটা সবারই জানা।

গত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেও খালেদের একটি বল বাংলাদেশের রিভিউ ব্যার্থতাকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছিল। এলবিডব্লিউ হওয়ার সব শর্ত পূরণ করা বলটি রিভিউ চাইতে চাইতে চলে গিয়েছিল বেঁধে দেয়া ১৫ সেকেন্ড সময়।

এবার ঘরের মাটিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেও একই চিত্র। শরিফুলের লেগ স্টাম্পের বাইরে পিচ করা বলটি আম্পায়ার আউট না দিলেও রিভিউ চান ক্যাপ্টেন। ফলাফল নট আউট।

২০২১ সাল পর্যন্ত এক হিসেব বলছে, রিভিউ সফল হওয়াতে সব থেকে পিছিয়ে থাকা দলটার নাম বাংলাদেশ। ২০২১ পর্যন্ত ৭৮টি রিভিউতে টাইগাররা ব্যর্থই হয়েছে ৬০বার।

বাংলাদেশে রিভিউ ব্যার্থতার দায়গুলো বরাবরই যায় অধিনায়কের দিকে। কিন্তু এক্ষেত্রে উইকেটকিপারের ভূমিকাটা অনেক সময় পড়ে যায় আড়ালে। অধিনায়কও বরাবরই আগলে রাখেন সতীর্থদের। কিন্তু, এভাবে আর কতদিন?

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply