বাবা-মায়ের সাথে ঘুমিয়েছিল ৫ বছরের শিশুটি, সকালে বাড়ির পাশে পাওয়া গেলো জখম লাশ

|

স্টাফ রির্পোটার, নেত্রকোণা:

নেত্রকোণার খালিয়াজুরিতে সায়েদা আক্তার নামের পাঁচ বছরের এক শিশুকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। রোববার (১৫ মে) সকালে কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের কুতুবপুর এলাকায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। নিহত শিশুটি ওই গ্রামের দিলু মিয়ার মেয়ে। রাতে বাবা-মায়ের সাথে ঘুমিয়েছিল সায়েদা। সকালে বাড়ির পাশেই রক্তাক্ত অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতের খাবার শেষে শিশুটিকে নিয়ে তার বাবা-মা এক বিছানায়
ঘুমিয়ে পড়েন। আজ সকাল সাতটার দিকে বাবা-মা ঘুম থেকে জেগে ওঠে মেয়েকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। পরে বাড়ির
পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন তারা।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খালিয়াজুরি সার্কেল) মোহাম্মদ রবিউল ইসলাম, খালিয়াজুরি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুজিবুর রহমানসহ পুলিশের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খালিয়াজুরি সার্কেল) মোহাম্মদ রবিউল ইসলাম জানান, শিশুটির মাথা, পিঠসহ শরীরে ধারালো অস্ত্রের অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। আমাদের পাশাপাশি জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) বিভাগ, সিআইডি ক্রাইম সিনসহ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের লোকজন কাজ করছে। আশা করা যাচ্ছে হত্যার রহস্য দ্রুত উন্মোচন করা সম্ভব হবে।

শিশুটির বাবা দিলু মিয়ার ভাষ্য, তার সঙ্গে পাশের বাড়ির মো. ইউসুফ ও গুলে হোসেনের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। প্রতিপক্ষের
লোকজন এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুর্বৃত্তরা রোববার সকাল ছয়টা থেকে সাতটার মধ্যে যে কোনো এক সময় শিশুটিকে হত্যা করে থাকতে পারে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply