লক্ষ্মীপুরে জুসের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ধর্ষণ, সৎ বাবা গ্রেফতার

|

প্রতীকী ছবি।

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে জুসের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ১৩ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় সৎ বাবা মো. মিলাদকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) বিকেলে কমলনগর থানা পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে সকালে তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের চরপাগলা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। কিশোরীর ভাইয়ের দায়ের করা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানা যায়, ৩ বছর আগে ভুক্তভোগী কিশোরীর মায়ের সঙ্গে সোনাইমুড়ি এলাকার নুরুল হকের ছেলে মো. মিলাদের বিয়ে হয়। এরপর থেকে মিলাদ ঘর জামাই হিসেবে শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করে আসছে। অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে কিশোরীর ওপর খারাপ নজর ছিল তার। বুধবার (১১ মে) সকালে কিশোরীর মা মেয়েকে ঘরে রেখে বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান। রাতে সৎ বাবা জুসের সঙ্গে তাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে দেয়। পরে অচেতন হয়ে পড়লে তিনি রাতভর তাকে ধর্ষণ করেন। এ সময় ধর্ষণের চিত্রও মোবাইল ফোনে ধারণ করেন। পরে সকালে কিশোরীর মামি ডাকাডাকি করলে মেয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় দরজা খুলে দেয়। এ অবস্থা দেখে মামি স্থানীয় গণ্যমান্যদের জানালে তারা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত মিলাদকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

কিশোরীর খালা বলেন, অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পর আমার ভাগ্নি দরজা খোলে। কিন্তু সে বিবস্ত্র অবস্থায় ছিল। জিজ্ঞেস করতেই সে বলে সৎ বাবা তার সর্বনাশ করেছে। এর আগে আমার বড় ভাগ্নিকেও মিলাদ যৌন হয়রানি করেছে। কিন্তু মিলাদের নির্যাতনের ভয়ে আমার বোন তা প্রকাশ করেনি।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার ভাইয়ের মামলায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এটিএম/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply