মসজিদের ইমাম হত্যা মামলায় ১১ জনের যাবজ্জীবন

|

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
জেলার কটিয়াদী থানার চাঞ্চল্যকর মসজিদের ইমাম মেরাজ উদ্দিন মুন্সি হত্যা মামলায় ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ মোট ২১ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান ও জরিমানা করেছেন কিশোরগঞ্জের তৃতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আবু তাহের। বুধবার দুপুরে আসামিদের উপস্থিতিতে জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় প্রদান করেন।

আসামিদের মধ্যে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন, আল্লাদ শাহ, মোকলেছুর রহমান শাহ, আতাউর রহমান শাহ, শামসুদ্দিন শাহ, শফির উদ্দিন শাহ, রঞ্জন শাহ, অহিদ শাহ, চন্দন শাহ, আসলাম, মন্টু মিয়া ও জামাল শাহ। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্তদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানাও করা হয়। এ ছাড়া মামলার অপর ১০ আসামিকে তিন বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলার অন্য আট আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করে আদালত।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ থেকে জানা গেছে, ২০০০ সালের ২৪ মার্চ সকালে কটিয়াদী উপজেলার ধুলদিয়া ইউনিয়নের সূতিনকলা গ্রামে ধানকাটা নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত হন স্থানীয় মসজিদের ইমাম মেরাজ উদ্দিন মুন্সি। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই আবু বকর বাদি হয়ে ২৭ মার্চ ৩১ জনকে আসামি করে কটিয়াদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্তশেষে ২০০২ সালের ২২ নভেম্বর ৩৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ঘটনার ১৮ বছর পর আজ এ মামলার রায় দেন আদালত। কিশোরগঞ্জের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট শাহ আজিজুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।









Leave a reply