প্রথম স্ত্রীকে হত্যা; স্বামীর যাবজ্জীবন, সতীন ও তার ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

|

স্টাফ করেসপনডেন্ট, দিনাজপুর:

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে প্রথম স্ত্রীকে হত্যার পর লাশ গুমের উদ্দেশ্যে পুড়িয়ে আলমত নষ্ট করার মামলায় স্বামী সাধনানন্দ চৌধুরী (৫৮)-কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদলত। এ ঘটনায় সতীন (২য় স্ত্রী) প্রতিমা রানী চৌধুরী (৪০), তার ছেলে আকাশ চৌধুরী (২২) ও ভাই (দ্বিতীয় স্ত্রীর ভাই) কাজল মহন্ত (২৭)-কে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত -৩।

এছাড়াও এই ঘটনায় প্রতিবেশী জীবন দাস (২৮) নামে এক আসামিকে ১০ বছর কারাদণ্ড ও ১ লক্ষ টাকা অর্থ দণ্ডাদেশ প্রদান করেছেন আদালত। অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত।

আজ বুধবার (১১ মে) ৩টার দিকে দিনাজপুর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এস এম রেজাউল বারী এই আদেশ প্রদান করেছেন। এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন এ্যাডভোকেট আতাউর রহমান আতা ও আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন এ্যাড. হামিদুর রহমান ও এ্যাড জাকারিয়া হোসেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৬ এপ্রিল রাত আনুমানিক ৯টার দিকে দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার সুজালপুর দাদপুর মালিপাড়া গ্রামে প্রথম স্ত্রী তাপতী রানীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তার স্বামী সাধনানন্দ চৌধুরী, তার দ্বিতীয় স্ত্রী প্রতিমা রানী, সৎ ছেলে আকাশ চৌধুরী, দ্বিতীয় স্ত্রীর ভাই কাজল মহন্ত ও প্রতিবেশী জীবন দাস। পরবর্তীতে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে পুড়িয়ে ফেলার চেষ্টা করে।

জেডআই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply