অচিরেই অস্তিত্ব হারাবে জাপান, ইলন মাস্কের টুইট ঘিরে তোলপাড়

|

ইলন মাস্ক। ছবি: সংগৃহীত।

টুইটারের একক মালিকানা লাভের পর থেকেই টেসলা প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্কের জনপ্রিয়তা এবং প্রভাব পৌঁছে গেছে ভিন্ন মাত্রায়। টুইটারে বিভিন্ন বিষয়ে তার করা একের পর টুইট নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তবে এবারে জাপানের অস্তিত্ব নিয়ে কথা বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন ইলন। আর এ জন্য জনরোষের মুখে পড়তে হয়েছে জাপান সরকারকেও। খবর এনডিটিভির।

সম্প্রতি টুইটারে ইলন লেখেন, সত্য কথা বলার ঝুঁকি নিয়েই বলছি, জাপানে মৃত্যুহারের তুলনায় দেশটির জন্মহারকে বৃদ্ধির জন্য যদি কোনো পরিবর্তন না আনা হয়, তাহলে অচিরেই অস্তিত্বহীন হয়ে যাবে জাপান। আর তা বিশ্বের জন্যও একটা বড় ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

ইলন মাস্কের এই টুইট নিয়ে এরই মধ্যে আলোচনা-সমালোচনার বন্যা বয়ে যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মটিতে। বিষয়টি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন টুইটার ব্যবহারকারীরা। বেশ কয়েক বছর ধরেই আশঙ্কাজনক নিম্ন জন্মহার দেখছে জাপান। ইলনের এই টুইটের পর জাপানি নাগরিকদের ক্ষোভের মুখে পড়েছে জাপান সরকার।

ইলনের টুইটের নিচে কেউ কেউ বলছেন, জাপানের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে ইলনের এভাবে কথা বলা শোভা পায় না। অনেকে আবার চটেছেন জাপান সরকারের বিরুদ্ধেই। জন্মহার বাড়ানোর ক্ষেত্রে দেশটির সরকার কার্যকরী কোনো পদক্ষেপ নিতে পারছে না বলে মত তাদের। অন্যদিকে, কিছু সংখ্যকের বিশ্বাস, জাপানের জন্মহার বৃদ্ধির জন্য দেশটির সরকারের খুব বেশি কিছু করার নেই।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সাল থেকেই জাপানের জন্মহার ক্রমাগত হ্রাস পাচ্ছে। যদিও এই পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশটির সরকার কাজ করে যাচ্ছে। তবে জন্মহার কম হলেও জাপান এখনও বিশ্বের তৃতীয় বৃহৎ অর্থনীতির তকমা ধরে রেখেছে সফলভাবে। সেই সাথে সারা বিশ্বের অর্ধপরিবাহী সরবরাহের মূল বাজার এখনও জাপানের দখলে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply