বরিশাল মহিলা দলের কমিটি গঠন নিয়ে বিতর্ক

|

মহিলা দলের কমিটি গঠন নিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন পদবঞ্চিত প্রার্থী ও তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

বরিশাল মহানগর বিএনপির মতো মহিলা দলের কমিটি নিয়েও বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, সংগঠনের শীর্ষ দুই পদে মূল্যায়ন করা হয়নি ত্যাগী নেত্রীদের। কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে নেয়া হয়নি তৃণমূলের মতামত। এ নিয়ে দেখা দিয়েছে অসন্তোষ।

বরিশাল দক্ষিণ জেলা মহিলা দলের সভাপতি ফারহানা তিথিকেই করা হয়েছে মহানগর কমিটির সভাপতি। পাপিয়া আজাদকে সাধারণ সম্পাদক করে, পহেলা মে মহানগর মহিলা দলের দুই সদস্যের কমিটি ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। এর প্রতিবাদে এবং কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেন সভাপতি প্রার্থী, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সাবেক প্যানেল মেয়র তাছলিমা কালাম পলি।

পদবঞ্চিত মহিলা দল নেত্রী শরীফ তাছলিমা কালাম পলি বলেন, দলের জন্য আমি অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি। এখন পর্যন্ত দুইবার জেল খেটেছি। তবু দলে কোনো মূল্যায়ণ পাইনি।

তৃণমূলের নেতাকর্মীদের অভিযোগ, পকেট কমিটি করেছে কেন্দ্র। অবমূল্যায়ন করা হয়েছে রাজপথের কর্মীদের। জেলা কমিটির মেয়াদ শেষ না হওয়ার আগেই, জেলার সভাপতিকে দেয়া হয়েছে মহানগরের দায়িত্ব।

কমিটি ঘোষণার পরবর্তী ১০ দিনের মধ্যে ১১১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। সেই অনুযায়ী কাজ চলছে বলে জানান নতুন সভাপতি।

বরিশাল মহানগর মহিলা দলের সভানেতি ফারহানা তিথি বলেন, আমাদের ১০ দিনের মধ্যে যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়ার কথা ছিল তার ৮০ শতাংশ কাজই হয়ে গেছে। যেটুকু বাকি আছে, সেগুলোর কাজ চলছে

পদবঞ্চিতরা বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। এরআগেও মহানগর বিএনপির কমিটি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে সরোয়ার পন্থীদের।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply