দেশের উত্তরাঞ্চলে বেড়েছে জ্বালানি তেলের সঙ্কট

|

জ্বালানি তেলের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে দেশের বিভিন্ন স্থানে। রাজশাহী, কুড়িগ্রাম-নীলফামারীসহ উত্তরাঞ্চলের বেশ কয়েকটি জেলায় একই চিত্র। সুনামগঞ্জেও চাহিদা অনুযায়ী গ্রাহকদের জ্বালানি তেল দিতে পারছে না পেট্রোল পাম্পগুলো। পাম্প কর্তৃপক্ষের দাবি, জ্বালানি তেল সরবরাহ বন্ধ রেখেছে ডিপোগুলো। ফলে এরইমধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে অনেকগুলো পেট্রোল পাম্প। সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষকে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবি ভুক্তোভোগীদের।

এনিয়ে যানবাহন চালকরা বলছেন, জেলায় দু’একটি পাম্পে পেট্রোল-অকটেন পাওয়া গেলেও চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম। অভিযোগ উঠেছে, সংকটের অজুহাত দেখিয়ে খোলা বাজারে প্রতি লিটার পেট্রোল ২০ টাকা বাড়িয়ে বিক্রি করা হচ্ছে দেড়শ টাকায়।

কুড়িগ্রাম পেট্রোল পাম্প সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজরুল ইসলাম জানান, ঈদ ঘিরে জেলায় পরিবহন সংখ্যা বেড়েছে। তারওপর উত্তরবঙ্গে জ্বালানি তেল ব্যবহারের বিকল্প না থাকায় সঙ্কটের মাত্রা এখন ঊর্ধ্বমুখী।

একই দশা নীলফামারীর পেট্রোল পাম্পগুলোতেও। জ্বালানী তেলের খোঁজে প্রতিদিনই এক পাম্প থেকে আরেক পাম্পে ছুটছেন যানবাহন চালকরা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, পেট্রোল-অকটেন সরবরাহ বন্ধ রেখেছে ডিপোগুলো। ফলে তীব্র হয়েছে সঙ্কট। সমস্যা সমাধানে জেলা ভিত্তিক তেল বন্টনের দাবি তাদের।

নীলফামারীর ৬ উপজেলায় পাম্প রয়েছে ৩৬টি। পাম্প কর্তপক্ষের দাবি, এক লিটারও মজুদ নেই তাদের।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply