খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি মুলতবি

|

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশের বিরুদ্ধে আপিল শুনানি আগামীকাল বুধবার পর্যন্ত ‍মুলতবি করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এর আগে সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে একই বেঞ্চে আপিলের শুনানি শুরু হয়।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালতে উপস্থিত ছিলেন। খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, জয়নুল আবেদীন ও মাহবুবউদ্দিন খোকন। দুদকের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান পেপারবুক থেকে যুক্তি তুলে ধরে খালেদা জিয়ার জামিনের বিরোধিতা করেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ভাল, খবরের কাগজে আসছে, আইজি প্রিজনও জানিয়য়েছে তার অবস্থা ভাল; তাকে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। খালেদা জিয়া ন্যায় বিচার পেয়েছেন; এমন বিচার নজিরবিহীন।

এসময় বিএনপির আইনজীবীরা এর প্রতিবাদ জানান। খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, অ্যাটর্নি এসব কথা বলতে পারেন না। কথা-পাল্টা কথায় দু’পক্ষের আইনজীবীদের মধ্যে বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়।

গত ১২ মার্চ দুদকের আবেদনের শুনানি নিয়ে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে চার মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি এ মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা কেন বৃদ্ধি করা হবে না, তা জানতে চেয়েও রুল জারি বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

এরপর, ১৯ মার্চ প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ ৮ মে পর্যন্ত জামিন স্থগিতের আদেশ দেন। একই সঙ্গে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের আইনজীবীদের আপিলের সারসংক্ষেপ জমা দিতে বলেন।

উল্লেখ্য, ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৫-এর বিচারক ড. আখতারুজ্জামানের আদালত খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। একই আদালত খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয় আসামির প্রত্যেককে দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা করে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেন। এরপর থেকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কারাগারে রয়েছেন বিএনপি নেত্রী।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply