দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোতে পৌঁছুতে ঢাকা থেকে গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া

|

শিমুলিয়া-বাংলাবাজারে যাত্রীর ভিড়ে বেসামাল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোতে পৌঁছুতে ঢাকা থেকে গুনতে হচ্ছে বাড়তি ভাড়া।

রাজধানী ঢাকার সাথে দক্ষিণাঞ্চলের জেলাগুলোর স্বল্প দূরত্বের কারণে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটটি গত কয়েক বছর জুড়েই অত্যন্ত জনপ্রিয় যাত্রীদের কাছে। এ বছরও রেকর্ড পরিমাণ যাত্রী এ রুট ব্যবহার করে দক্ষিণাঞ্চলে যাচ্ছে। পদ্মা সেতু সংলগ্ন এ রুটে তাই সৃষ্টি হয়েছে যাত্রীর প্রচণ্ড চাপ। যাত্রীদের চাপ সামাল দিতে মোতায়েন রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। লঞ্চ ও স্পীডবোটেও ভিড় অনেক বেশি। এছাড়া, ফেরিতেও যানবাহন ও যাত্রীদের চাপ রয়েছে। লঞ্চগুলো ধারণক্ষমতার বেশি যাত্রী নিয়ে চলছে বলে জানা যায়।

অতিরিক্ত বোঝাই হয়ে লঞ্চগুলো পরিভ্রমণ না করার ব্যাপারে সংস্থাগুলো চেষ্টা চালালেও যাত্রীদের অতিরিক্ত চাপে তা নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। খালি ফেরি, লঞ্চ ও স্পীডবোট এনে পরিস্থিতি সামাল দেয়া হচ্ছে। স্পীডবোটে যাত্রী প্রতি বাড়তি ৫০ টাকা করে বেশি আদায় করা হচ্ছে। ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা প্রতিটি যানবাহন খালি আসার কারণ দেখিয়ে বাড়তি ভাড়া নিচ্ছে। নদী পার হয়ে বাংলাবাজার থেকে দক্ষিণাঞ্চলগামী প্রতিটি যানবাহনই ঘাট পর্যন্ত দেড়গুণ থেকে ২ গুণ ভাড়া আদায় করছে। লোকাল বাসগুলো রুট পরির্বতন করে দুরপাল্লায় চলায় আভ্যন্তরীণ রুটগুলোতে হালকা যানবাহনগুলো বাড়তি ভাড়া নিচ্ছে অবাধে।

আরও পড়ুন: বাসের জন্য যাত্রী নয়, যাত্রীর অপেক্ষায় বাস!

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply