সিলেটে পৌঁছেছে সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিতের মরদেহ

|

আবুল মাল আবদুল মুহিত। ছবি: সংগৃহীত।

জন্মস্থান সিলেটে পৌঁছেছে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ভাষা সৈনিক ও সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের মরদেহ। আজ শনিবার (৩০ এপ্রিল) রাত পৌনে ১০টায় তার মরদেহবাহী গাড়ি সিলেটের ধোপাদিঘীরপাড়স্থ বাসভবন হাফিজ কমপ্লেক্সে পৌঁছায়।

বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থায় (বাসস) প্রকাশিত খবরে বলা হয়, মুহিতের মরদেহ সিলেটে পৌঁছানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী জানান, রোববার (১ মে) তাকে পারিবারিক গোরস্থান রায়নগরের ডেপুটি বাড়িতে দাফন করা হবে। এর আগে বেলা ২টায় সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে মুহিতের সর্বশেষ জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। দুপুর ১২টায় তার মরদেহ সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেয়া হবে। জানাজা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সিলেটের ঐতিহাসিক আলিয়া মাদরাসা মাঠ প্রস্তুতির কাজ করেছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন।

সিলেটের সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব আবুল মাল আবদুল মুহিতের লাশবাহী গাড়ি সিলেটে পৌঁছার পর হাফিজ কমপ্লেক্সে তার মরদেহ গ্রহণ করেন পরিবারের সদস্য, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ পদস্থ কর্মকর্তারা। এ সময় এক নজর মুহিতকে দেখতে স্বজন, শুভানুধ্যায়ী ও সর্বস্তরের দলীয় নেতাকর্মীরা ভিড় করেন।

শনিবার (৩০ এপ্রিল) সকাল ১১টায় গুলশান আজাদ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয় সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিতের প্রথম জানাজ। পরে বেলা ১২টার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে আনা হয় মরদেহ। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তাদের সামরিক সচিবগণ ফুলেল শ্রদ্ধা জানান। এরপর জাতীয় সংসদের স্পিকারের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এছাড়া রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ও নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ শ্রদ্ধা জানান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। শহীদ মিনারে ঘন্টাখানেক শ্রদ্ধা পর্ব শেষে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

খ্যাতনামা অর্থনীতিবিদ, রাজনীতিবিদ, ভাষাসৈনিক, সাবেক অর্থমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল মাল আবদুল মুহিত শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ৫৬ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় সাবেক অর্থমন্ত্রী বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। মাঝে তাকে কয়েক দফায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ সরকারের অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। অর্থমন্ত্রী হিসেবে আবুল মাল আবদুল মুহিত ১২টি বাজেট উপস্থাপন করেছেন। তিনি ১৯৩৪ সালের ২৫ জানুয়ারি সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন। আবুল মাল আবদুল মুহিতের মৃত্যুতে তার জন্মস্থান ও নির্বাচনী এলাকা সিলেটে দলমত নির্বিশেষে সবার মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আরও পড়ুন: যুদ্ধের সময় পাকিস্তানের কূটনৈতিক দায়িত্ব ত্যাগকারী প্রথম কূটনীতিক ছিলেন মুহিত

/এম ই





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply