ধানসিঁড়ি খননে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ

|

ঝালকাঠিতে ধানসিঁড়ি নদী খননে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। নকশা অমান্য করে খনন করায় নদী পরিণত হয়েছে সরু খালে।
অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে এলাকাবাসী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করছে। এর প্রেক্ষিতে ডিজাইন ও সিডিউল অনুযায়ী কাজ শেষ করতে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

নদী ও খাল খনন প্রকল্পের আওতায় ঝালকাঠিতে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ধানসিঁড়ি নদী সাড়ে ৮ কিলোমিটার পুনর্খননের জন্য প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়। কার্যাদেশ পাওয়া ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শর্ত দেয়া হয়েছিল ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিলের মধ্যে কাজ শেষ করতে হবে। কিন্তু খননে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে প্রকল্পের কাজ শেষ না করেই ঠিকাদার সটকে পড়ায় কার্যাদেশ বাতিল হয়।

অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে বর্তমান অর্থ বছরে একটি প্রকল্প নেয়া হয়। প্রায় ২ কোটি টাকার কার্যাদেশ দেয়া হয়েছে ঠিকাদার মেসার্স আবুল কালাম আজাদকে। এখনও স্থানীয়দের অভিযোগ কাজের মান নিয়ে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, নদীর দুই পাড় থেকে মাটি কেটে আবার নদীতেই ফেলা হচ্ছে। ১৫ ফুটের জায়গায় খনন হচ্ছে ৫ থেকে ৬ ফুট। নদীর তীর রক্ষার নামে মাটি কেটে সমান করা হচ্ছে, যা বর্ষায় ধুয়ে যাবে। তবে অভিযোগ খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply