দখলকৃত খেরসনে নিজস্ব মুদ্রা চালু করছে রাশিয়া

|

ছবি: সংগৃহীত

ইউক্রেনে চলমান সামরিক অভিযানের তৃতীয় মাসে এসে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় খেরসন অঞ্চল পুরোপুরি দখলে নেয় রুশ সেনারা। আগামী ১ মে অঞ্চলটিতে রুবল চালু হবে। খবর এনডিটিভির।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মুদ্রাব্যবস্থার এমন পরিবর্তনের জন্য চার মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। এ সময়কালে রাশিয়ার মুদ্রা রুবল ও ইউক্রেনের মুদ্রা হ্রিভনিয়া বাজারে ছাড়া হবে। বাজারে পৃথক দুই মুদ্রা ছাড়ার মধ্য দিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের কাছে থাকা হ্রিভনিয়া মুদ্রা বিনিময় করে রুবল নেয়ার সুযোগ পাবেন।

দুই দিন আগে ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় খেরসন অঞ্চল পুরোপুরি দখলে নেয় রুশ সেনারা। সেসময় রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, তাদের বাহিনী দক্ষিণ ইউক্রেনের সমগ্র খেরসন অঞ্চলটিকে ‘মুক্ত’ করেছে। যদিও মার্চের শুরুতেই খেরসন শহরটি দখলে নিয়েছিল রুশ সেনারা।

খেরসন অঞ্চলটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর রাশিয়ার লোকজন টিভি ও রেডিও সম্প্রচার কার্যক্রম চালাচ্ছেন। স্থানীয় বাসিন্দারা রুবল ব্যবহার শুরু করেছেন। দখলকৃত অঞ্চলে রুবলের ব্যবহার বেশি।

কৃষ্ণসাগর উপকূলবর্তী খেরসন অঞ্চলে প্রায় ২৫ লাখ মানুষের বসবাস। খেরসন শহরটি রাশিয়ার কাছে কৌশলগতভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ শহর দিয়েই রাশিয়ার অধিকৃত ক্রাইমিয়া অঞ্চলের সঙ্গে ইউক্রেনের মূল ভূখণ্ডের সংযোগ ঘটে। এ জন্য ইউক্রেনে হামলা শুরুর পরই রুশ বাহিনীর লক্ষ্য ছিল, খেরসন নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়া।
আরও পড়ুন: রুশ মুদ্রায় গ্যাস কিনছে ইউরোপের চার দেশ
ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply