আবারও দাম বেড়েছে ভোজ্যতেলের, রাজশাহীর বাজার থেকে উধাও বোতলজাত সয়াবিন

|

রাজশাহীতে রমজানের মাঝামাঝি থেকে আবারও দাম বেড়েছে ভোজ্যতেলের। পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অন্তত ৪০ থেকে ৫০ টাকা বেশি দরে বিক্রি হচ্ছে খোলা সয়াবিন। সেই সঙ্গে বাজার থেকে প্রায় উধাও বোতলজাত সয়াবিন তেল। দাম বাড়ায় অস্থির সেমাইয়ের বাজার। ঈদের আগে এসব পণ্যের দাম বাড়ায় বিপাকে প্রান্তিক মানুষ।

রাজশাহীর বানেশ্বরের ভোজ্য তেলের পাইকারি দোকানে মূল্য তালিকায় খোলা সয়াবিন তেলের দাম লেখা লিটার প্রতি ১৩৬ টাকা। যা সরকার নির্ধারিত। অথচ তারা বিক্রি করছেন প্রতি লিটার ১৭২ টাকা। আশেপাশের আড়তগুলোতেও সংকটের অজুহাত দেখিয়ে প্রতি কেজি খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৯৩ টাকায়ও।

রমজানের মাঝামাঝিতে তেলের বাজারের এই অস্থিরতার শুরু। বাজার থেকে উধাও বোতলজাত সয়াবিন। পাম তেলের দামও বাড় বাড়ন্ত। মাঝে দাম কিছুটা কমলেও খোলা সয়াবিন তেল এখন গ্রাম পর্যায়ে খুচরা বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২২০ টাকায়। তেলের বাড়তি দামের সাথে সাথে লাফিয়ে বাড়ছে ঈদের অন্যতম অনুষঙ্গ সেমাইয়ের মূল্য। প্রান্তিক পর্যায়ের ভোক্তারা ঈদের আগে তেল ও সেমাইয়ের চড়া দামে হতাশ।

তবে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক অপূর্ব অধিকারী জানালেন, ব্যবসায়ী ও ভোক্তা উভয়ের স্বার্থ অক্ষুণ্ন রেখে বাজার স্থিতিশীল করার চেষ্টা করছেন তারা।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply