পুলিশকে কুপিয়ে জখম করলো আসামির স্ত্রী

|

আহত এএসআই কৃষ্ণকান্ত মিত্র।


বরিশাল ব্যুরো:

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় হত্যা মামলার আসামিকে ধরতে গিয়ে আসামির স্ত্রীর বটির কোপে আহত হয়েছেন পুলিশের এক এএসআই। এ ঘটনার পর আসামি মনির হাওলাদার ও তার স্ত্রী কুলসুম বেগমকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বাকেরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) রাতে উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত বাকেরগঞ্জ থানার এএসআই কৃষ্ণকান্ত মিত্র বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন, তবে এই মুহূর্তে তিনি শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বাকেরগঞ্জ থানার ওসি আলাউদ্দিন মিলন জানান, গত ১৯ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে বাকেরগঞ্জের ফরিদপুর ইউনিয়নের ইছাপুরা গ্রামে মামুন মেম্বার ওরফে হাতকাটা মামুন ও রনি মোল্লার লোকজনের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হওয়া সংঘর্ষে মামুনের সহযোগীরা রনি মোল্লা ও তার দুই ভাইকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। পরে আহতদের বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাত সাড়ে ৩টার দিকে চিকিৎসক রনিকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় দায়েরকৃত হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ১৪ নম্বর আসামি মনির। সোমবার রাতে তাকে ধরতে সোনাপুরে গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ।  এ সময় মনিরের স্ত্রী কুলসুম বটি দিয়ে এএসআই কৃষ্ণকান্তের মাথায় কোপ দেয়। সেখানে থাকা বাকি লোকজন মনিরকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এবং পরে পালিয়ে যায়।

বাকেরগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত সরকার এ ব্যাপারে বলেন, মনিরকে ছিনিয়ে নিতেই মূলত তার স্ত্রী পুলিশের ওপর হামলা চালায়। কুলসুমের বিরুদ্ধে আসামি ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা, সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগে মামলা হয়েছে। তাদের দুজনকেই আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply