নাটোরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

|

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি।

সিনিয়র করেসপনডেন্ট, নাটোর:

নাটোরের বড়াইগ্রামে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী শাহীন মন্ডলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফ উদ্দিন এই আদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত শাহীন মন্ডল উপজেলার তেলো পশ্চিমপাড়া এলাকার রইচ উদ্দিন মন্ডলের ছেলে।

আদালতের ভারপ্রাপ্ত পিপি আরিফুর রহমান জানান, ২০১৫ সালের জুলাই মাসে নাটোরের বনপাড়া কালিকাপুর গ্রামের আফছার মিয়াজীর মেয়ে চাম্পা খাতুনের সাথে একই উপজেলার তেলো পশ্চিমপাড়া মহল্লার রইচ উদ্দিন মন্ডলের ছেলে শাহীন মন্ডলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই চাম্পা খাতুনতে এক লাখ টাকা যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে স্বামী শাহীন মন্ডল। চাম্পা খাতুন তার বাবার কাছ থেকে যৌতুকের এনে দিতে অস্বীকার করায় প্রায়ই স্বামীর সাথে তার বিরোধ লেগে থাকতো।

এরই একপর্যায়ে ২০১৬ সালের ২০ জানুয়ারি রাতে বিবাদের সময় চাম্পা খাতুনকে ধারালো হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় শাহীন মন্ডল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

এ ঘটনার পরেরদিন নিহত চাম্পা খাতুনের বাবা আফছার মিয়াজী বাদী হয়ে মেয়ের স্বামী শাহীন মন্ডল ও তার শ্বশুড়, শ্বাশুড়ীকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ শাহীন মন্ডলকে গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে চাম্পা খাতুনের শ্বশুড় ও শ্বাশুড়ীর নাম বাদ দিয়ে শুধুমাত্র স্বামী শাহীন মন্ডলের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। মামলার সাক্ষ্যপ্রমাণ গ্রহণ শেষে আদালতের বিচারক শাহীন মন্ডলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। এছাড়া ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply