নিষ্ঠুর দেবরের একি কাণ্ড!

|

ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে মাদকাসক্ত দেবর স্বপন মোল্লার ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন নাসিমা বেগম (৪০) নামের এক গৃহবধূ। তার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় এ হামলা করা হয় বলে জানান নাসিমা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার বিকেলে শহরের ২ নং হাবেলী গোপালপুর এলাকার বাসিন্দা বেসরকারি নিরাপত্তা কর্মী আব্দুল ওয়াহাব মোল্লার স্ত্রী নাসিমা স্থানীয় বনলতা সিনেমা হলের সামনে রাস্তা পার হবার সময় তার ওপর জনসম্মুখে ছুরি দিয়ে হামলা চালান স্বপন মোল্লা। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে স্বপনকে গ্রেফতার করে। নাসিমা বেগমকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নাসিমা বেগমের মেয়ে স্থানীয় হালিমা গার্লস স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী জ্যোতি আক্তার জানায়, সহপাঠিদের নিয়ে স্কুলে যাবার পথে দীর্ঘদিন যাবৎ অকথ্য ভাষায় ও অশালীন কুরুচিপূর্ণ ইঙ্গিতে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছে মাদকাসক্ত চাচা স্বপন। এর আগে একাধিকবার এর প্রতিবাদ করা হলেও মামলা না করে প্রতিবারই বিষয়টি স্থানীয়দের নিয়ে মিমাংসা করে ফেলা হয়েছে।

সম্প্রতি স্বপন মোল্লা আরো বেশী বেপরোয়া হয়ে উঠলে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় একজন আওয়ামীলীগ নেতার সহযোগিতা চায় নাসিমা বেগম। আর এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে স্বপন ছুরি নিয়ে হামলা চালায় তার ভাবি নাসিমার ওপর।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুর কোতয়ালী থানার এস আই মোজাম্মেল হেসেন জানান, নাসিমা বেগমের মাথা, পিঠ ও বা হাতের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। হামলাকারী স্বপন মোল্লাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। আহত নাসিমা বেগমের ছেলে হাসান মোল্লা বাদী হয়ে এ ব্যাপারে একটি মামলা করেছেন।









Leave a reply