রোজায় গ্যাস্ট্রিক থেকে রক্ষা পাওয়ার টোটকা

|

গ্যাস্ট্রিকের অন্যতম কারণ খাবারে অনিয়ম। রোজায়ও এটি অনেকে করে থাকেন। এছাড়া গরমে দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকার কারণে অনেকেই রোজা রেখে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের মধ্যে বিশেষ করে বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য, গ্যাস্ট্রিকের মতো সমস্যাগুলো দেখা দেয়।

পুষ্টিবিদদের মতে, কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখলে এড়ানো যাবে এ সমস্যা। রোজা রেখে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়বে না একেবারেই।

• সেহরিতে দুধ ও ফল
সেহরিতে দুধ ও ফল খাওয়া জরুরি। চাইলে মিল্কশেক বানিয়েও খাওয়া যেতে পারে। সেহরিতে দুধ খেলে পুষ্টির চাহিদা যেমন মিটবে, তেমনি পানিশূন্যতাও ধূর হবে। আর ফল খেলে হজমের সমস্য ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হবে।

• ইফতারে দই ও খেজুর
ইফতারে খেজুর ও দই খেলে শরীর যেমন ঠান্ডা থাকবে, তেমনি অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার ইচ্ছেও হবে না খুব একটা।

• খাবার বাছাইয়ে সতর্কতা
ভাজাপোড়া খাওয়া যাবে না রমজানে। ইফতারে গুড়ের শরবত, বেলের শরবত, পাকা কলা খেলে গ্যাস্ট্রিক ও কোষ্ঠকাঠিন্য থাকবে দূরে। হজমেও বেশ সহায়ক এসব খাবার।

/এমএন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply