ট্রাম্প-ম্যাকরনের লাগানো গাছটার কী হলো?

|

ক’দিন আগেই ওয়াশিংটন সফর গিয়েছিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন। হোয়াইট হাউজে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাথে বৈঠকে ইরানের পরমানু চুক্তিসহ নানা ইস্যুতে কথা বলেন। এরপর তাঁরা দুজনে মিলে হোয়াইট হাউজের আঙিনায় একটি গাছ লাগিয়েছিলেন। চমকপ্রদ বিষয় হচ্ছে সেই গাছটিকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ফ্রান্সের বেলেই জঙ্গলে জার্মান বাহিনীর সাথে লড়াইয়ে দুই হাজার মার্কিন সেনা নিহত হয়। এই গাছটি আনা হয়েছিলো সেই জঙ্গল থেকেই। গাছটি যে সেখানে আর নেই, লাগানোর পরের দিনই তা ধরে ফেলেন হোয়াইট হাউজের এর ফটোগ্রাফার। এটা কার কাজ হতে পারে? শুরু হয় জোর গুঞ্জন।

খোঁজখবর নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা জানতে পারেন, গাছটিকে তুলে একটি সুরক্ষিত জায়গায় রাখা হয়েছে। মার্কিন ও ফরাসি কর্তারা বলছেন, এই গাছে থাকা জীবানু হোয়াইট হাউজের অন্য কোন গাছ বা মানুষের শরীরে যাতে ছড়াতে না পারে সে কারণেই এই ব্যবস্থা নেয়া।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের দফতরের এক কর্মকর্তা জানান, হোয়াইট হাউজে গিয়ে গাছ লাগানোর সুযোগ পাওয়া একটা বড় ব্যাপার। এ জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। গাছটিকে জীবানুমুক্ত করা হচ্ছে। অচিরেই তা আবারও হোয়াইট হাউজের বাগানে শোভা পাবে। চিন্তার কোন কারণ নেই, গাছটি ভালো আছে।









Leave a reply