কোটা ইস্যুতে তারেক রহমানের ফোনালাপ নিয়ে আলোচনার ঝড়

|

কোটা সংস্কার আন্দোলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থি শিক্ষকদের সক্রিয় সমর্থন দেয়ার অনুরোধ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ফোনালাপ নিয়ে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। এছাড়া সামাজিক মাধ্যমেও বিষয়টি নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মামুন আহমেদের সঙ্গে লন্ডনে থাকা তারেকের ফোনালাপের একটি অডিও ক্লিপ বুধবার সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এর ভিত্তিতে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে খবরও প্রকাশিত হয়েছে।

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ অভিযোগ করেছেন, তারেক রহমান কোটা সংস্কার আন্দোলনকে অন্য খাতে প্রবাহিত করতে চেয়েছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলায় জড়িতদের শনাক্ত করতে অধ্যাপক মামুন আহমেদকে গ্রেফতারের দাবিও জানান এই আওয়ামী লীগ নেতা।

বিএনপি সব আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন কোটা সংস্কারের আন্দোলন আঁকড়ে ধরে বাঁচার চেষ্টা করেছে বলেও মন্তব্য করেন হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, “বিএনপি সব আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে পরগাছা দলে পরিণত হয়েছে। তাদের রাজনীতি বানের পানিতে ভেসে গেছে। তাই কোটাবিরোধী আন্দোলনকে আঁকড়ে ধরে বাঁচার চেষ্টা করেছেন বিএনপি নেতারা।”

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার সেগুন বাগিচার স্বাধীনতা হলে এক আলোচনা সভায় হাছান মাহমুদ বলেন, “কোটাবিরোধী আন্দোলনে বিএনপি-জামায়াতের পেট্রোল বোমাবাহিনী বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করছিল। তারেক রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মামুনের সাথে কথা বলে আন্দোলনে বাতাস কীভাবে দেয়া যায়, সেই চেষ্টা করেছেন। মামুন সাহেবকে গ্রেফতার করা উচিৎ, তাহলে কারা এই ভাঙচুর করেছে, তার তথ্য বেরিয়ে আসবে।”

এদিকে ফোনালাপের বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বৃহস্পতিবার এক আলোচনা অনুষ্ঠানে বলেন, ‘দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান যদি সমমনা কোনো শিক্ষককে আন্দোলনে সমর্থন দিতে বলেন, তাতে অন্যায়ের কিছু নেই।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী তারেকের ফোনালাপকে স্বাভাবিক ঘটনা বলে মন্তব্য করেছেন। আজ নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘একটি যৌক্তিক আন্দোলনে সমর্থন দিতে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দলের একজন উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যকে তারেক রহমান ফোন দিতেই পারেন। এই ফোনালাপ স্বাভাবিক ঘটনা।’

ফোনালাপে তারেক রহমান কোটা সংস্কার আন্দোলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থি সাদা দলের শিক্ষকদের সমর্থন দেয়ার কথা বলেন। তিনি বিষয়টি সমন্বয়ের দায়িত্ব দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) সভাপতি অধ্যাপক মামুন আহমেদকে। ফলিত রসায়ন বিভাগের এই শিক্ষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply