গণধর্ষণের পর চুল কেটে জুতার মালা পরিয়ে রাস্তায় ঘোরানো হলো তরুণীকে

|

ছবি: সংগৃহীত

এক তরুণের আত্মহত্যার জন্য দায়ী করে ২০ বছরের এক তরুণীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণ করা হয়েছে। এরপর তার চুল কেটে, মুখে কালি মাখিয়ে প্রকাশ্যে রাস্তায় হাঁটানোর অভিযোগ উঠেছে এক দল নারীর বিরুদ্ধে। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির কস্তুরবা নগরে ঘটেছে এমন ঘটনা।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এই ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দ্যনীয় বলে উল্লেখ করে টুইটে এই ঘটনাকে, অত্যন্ত লজ্জাজনক বলে আখ্যা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: কানাডায় স্কুল প্রাঙ্গণে মিললো ৯৩টি শিশুর কবর

১২ নভেম্বর ওই তরুণ আত্মহত্যা করেন। তার মৃত্যুর জন্য ২০ বছর বয়সী তরুণীকেই দায়ী করেন আত্মহত্যা করা তরুণের পরিবার। অভিযোগ, এরপরই তাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যান তরুণের চাচা। এরপর দলবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। দিল্লি পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেছেন, এই ঘটনায় চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপারসন স্বাতী মালিওয়াল বলেন, ২০ বছরের এক তরুণীকে অবৈধ মদের কারবারিরা দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন। এর পর তার মাথা মুড়িয়ে, জুতোর মালা পরিয়ে, মুখে কালি মাখিয়ে রাস্তায় হাঁটানো হয়। দিল্লি পুলিশের কাছে সব অপরাধীকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছি।

/এনএএস





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply