মেয়ে মোবাইলে আসক্ত, ‘শাস্তি’ দিতে বারংবার ধর্ষণ করলো বাবা!

|

ছবি: সংগৃহীত।

ভারতে এক জন্মদাতা পিতার বিরুদ্ধে উঠেছে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ। এরই মধ্যে অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে তদন্তে নেমে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে। সম্প্রতি এমন অভিযোগ উঠেছে দেশটির অন্ধ্রপ্রদেশের বন্দরনগরী বিশাখাপত্তনামে।

এ নিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৫ বছর বয়সী ওই কিশোরী মোবাইল ফোনে বেশি আসক্ত ছিল বলে অভিযোগ তার ৪২ বছর বয়সী বাবার। তাই মেয়েকে ‘শাস্তি’ দিতে একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করেন তিনি।

প্রথম দিকে ভয় ও লজ্জায় কাউকে কিছু না বললেও একসময় নিজের এক শিক্ষককে বিষয়টি খুলে বলে ওই কিশোরী। স্তম্ভিত শিক্ষক সাথে সাথেই ডেকে পাঠান তার বাবাকে। শিক্ষকের দাবি, মেয়েকে যৌন নির্যাতনের কথা স্বীকারও করেন তার বাবা। পরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আরও পড়ুন: অপমানের জবাব দিতে ১০ লাখ টাকা নিয়ে গাড়ির শোরুমে কৃষক

তবে তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, বছর দুই আগে অভিযুক্ত ওই বাবার কিডনি বিকল হয়ে যায়। তখন স্ত্রী তাকে কিডনি দান করেন। কিন্তু এরপর স্ত্রী নিজেই অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বামী তাকে পাঠিয়ে দেন বাপের বাড়ি। তবে মেয়ে থাকতো বাবার কাছে। আর তারপর দিনের পর দিন মেয়েকে যৌন হেনস্থা করে আসছিলেন জন্মদাতা।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply