তামিমের টি-টোয়েন্টি ছাড়ার কারণ হতে পারে মনোমালিন্য, সুজনের ইঙ্গিত

|

তামিমের সাথে আলোচনায় বসবেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

মনোমালিন্যের কারণে জাতীয় দলের হয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট না খেলার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন তামিম ইকবাল। সিদ্ধান্ত বদলাতে সোমবার (২৪ জানুয়ারি) তার সাথে আলোচনা করতে চান বাংলাদেশ দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন। সেই সাথে বিসিবির এই প্রভাবশালী পরিচালক আলোচনা করে নিশ্চিত করতে চান ২০২২ সালে তিন ফরম্যাটেই খেলবেন দেশসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি আর খেলতে চান না তামিম ইকবাল, এ প্রসঙ্গে খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, কিছুটা অবাক হয়েছি। নিউজিল্যান্ড যাওয়ার আগে তামিমকে জিজ্ঞেস করেছিলাম এ নিয়ে। তখন খুব বেশি কথা হয়নি। আর ভেবেছিলাম দেশে ফিরে এ নিয়ে কথা বলবো। কিন্তু তার আগেই পাপন ভাইকে তামিম জানিয়েছে তার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলার ব্যাপারে অনাগ্রহের কথা।

তামিমের এমন সিদ্ধান্ত নিয়ে চলছে গুঞ্জন। হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর সাথে তামিমের যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে সেখান থেকেও এই সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে, এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন সুজন। তাইতো দ্রুতই সিদ্ধান্ত বদলাতে তামিমের সাথে আলোচনা করতে চান বিসিবির এই পরিচালক। খালেদ মাহমুদ সুজন জানান, কাল (২৪ জানুয়ারি) তামিমের সাথে দেখা হবে তার। দলের মধ্যে ছোটখাট যেসব মনোমালিন্যের ঘটনা আছে, সেসব যোগাযোগের ঘাটতি, ব্যাখ্যার অপর্যাপ্ততার মতো বিভিন্ন কারণেই হয়ে থাকে। সে সব ঠিক করার চেষ্টা করবেন বলেও জানান সুজন।

আরও পড়ুন: তামিম আর আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলতে চায় না: পাপন

তামিমের মতো এক ফরম্যাট খেলবেন না, এমন সিদ্ধান্ত এখনও জানাননি সাকিব আল হাসান। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ সফরে তার ছুটি নেয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। এই সমস্যার সমাধানও করতে চান খালেদ মাহমুদ। সাকিবের সাথে যোগাযোগের ঘাটতির কারণেই ঝামেলা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন এই পরিচালক। ২০২২ সালের ব্যস্তসূচিতে তিন ফরম্যাটেই সাকিবকে পাওয়া যাবে, এমন বিশ্বাস জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়কের। খালেদ মাহমুদ সুজন জানান, সাকিব কখনোই বলেননি যে তিনি খেলবেন না। হয়তো সিরিজ অনুসারে এমনটি বলেছেন তিনি। তবে সাকিবের সাথে বসে এই সমস্যার উত্তরণ ঘটানো যাবে বলেও আশাবাদী এই পরিচালক।

আরও পড়ুন: তামিমের বিকল্প কি তৈরি হয়েছে?

এম ই/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply