র‍্যাবের কারণেই দেশে সন্ত্রাস কমেছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

|

ছবি: সংগৃহীত

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, র‍্যাব কাজে কর্মে অত্যন্ত দক্ষ। তারা খুব ইফেক্টিভ, ভেরি ইফিসিয়েন্ট, করাপ্ট নয়। এ জন্যই জনগণের আস্থা অর্জন করেছে এই বাহিনী। তাদের কারণেই দেশে সন্ত্রাস কমেছে।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে তিনি নগদীপুর ছয়হারা ইসলামিয়া আরবিয়া মাদরাসা, সৈয়দ মনোহর আলী অষ্টগ্রাম মহাবিদ্যালয়, শিরিলব চৌধুরী চাইল্ড কিন্ডারগার্টেন পরিদর্শন করেন।

র‍্যাবের বিরুদ্ধে কথা বলাকে খুবই দুঃখজনক মন্তব্য করে তিনি বলেন, যারা র‍্যাবের সমালোচনা করেন, তারা হয়তো একতরফা তথ্য পেয়েছেন, আমরা হয়তো ঠিকমতো তাদের জানাতে পারিনি। যারা র‍্যাবকে পছন্দ করে না, তারাই এই তথ্য সরবরাহ করেছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, সব দেশেই ল অ্যান্ড ফোর্স বিং অ্যাজেন্সিতে কিছু মৃত্যু হয়। বাংলাদেশেও কিছু হয়েছে। গত ১০ বছরে ৬০০ জন মিসিং হয়েছে যুক্তরাজ্য দাবি করেছে। কিন্তু আমেরিকাতে প্রতিবছর এক লাখ মিসিং হয়। এর দায়দায়িত্ব কে নেবে? আমাদের দেশে মিসিং যারা হয়, পরবর্তীতে দেখা যায় আবার তিনি বের হয়ে আসছেন। আর এসব তথ্য যাচাই-বাছাই না করে, বড় বড় বিদেশি লোক না জেনে অভিযোগ করে।

তিনি বলেন, যারা র‍্যাবের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন, তাদের আহ্বান করি, আসেন, দেখেন, লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন, সত্য ঘটনা উদঘাটন করেন। তারপর সিদ্ধান্ত নেবেন। আপনারা জানেন, দুটি ক্ষেত্রে র‌্যাব অন্যায় করেছিল, সেগুলোর জুডিশিয়াল প্রসেসে বিচার হয়েছে। ওদের শাস্তিও হয়। আর এই র‍্যাব তৈরি করেছে আমেরিকান ও ব্রিটিশরা। তারা প্রশিক্ষণ দিয়েছে। ইউএসএ (যুক্তরাষ্ট্র) তাদের শিখিয়েছে তাদের রুলস অ্যান্ড এনগেজমেন্ট, কীভাবে মানুষের সঙ্গে ব্যবহার করতে হবে, হাউ টু ইন্টারগেশন। এগুলো সব কিছু শিখিয়েছে আমেরিকা। তাদের রুলস অব এনগেজমেন্টে যদি কোনো দুর্বলতা থাকে, কোনো উইকনেস থাকে, যদি কোনো হিউম্যান রাইট ভায়োলেট হয়, অবশ্যই নতুন করে (র‍্যাবের) ট্রেনিং হবে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply