প্রেমিকের জন্য ঘর-ধর্ম ছাড়া সেই তরুণীর কী হলো?

|

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার এক তরুণীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠেছিলো তার সহপাঠি ও স্থানীয় যুবক জাহাঙ্গীর আলম জাহিদের সাথে। বিয়ে করার কথা বলে মেয়েটির সাথে শারিরীক সম্পর্কও গড়ে তোলেন জাহিদ। প্রেমের টানে নিজে হিন্দু ধর্ম ছেড়ে মুসলমানও হয়েছিলেন ওই তরুণী। কিন্তু এক পর্যায়ে বিয়ে না করতে টালবাহানা শুরু করে জাহিদ। নিরুপায় মেয়েটি শেষমেশ বিয়ের দাবিতে আশ্রয় নেন প্রেমিকের বাড়িতে।

মেয়েটিতে বাড়িতে ওঠার পর প্রেমিক ও তার পরিবারের সদস্যরা পালিয়ে যায়। ফিরে যাওয়ার কোনো জায়গা নেই। তাই ওই বাড়ি থেকে সরে না যাওয়ার বিষয়ে নাছোড়বান্দা ছিলেন তরুণী। এক পর্যায়ে একা বাড়িতে তার নিরাপত্তার জন্য দুইজন গ্রাম পুলিশকে নিয়োগ দেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান।

এভাবে এক মাস অবস্থানের পরও জাহিদ ও তার পরিবার ফিরে আসায় স্থানীয় প্রশাসন ও এলাকাবাসী এগিয়ে আসে মেয়েটির সহায়তায়। তরুণীর ভবিষ্যতের কথা ভেবে তাকে বিয়ে করতে রাজি হন তারই আরেক সহপাঠি। এরপর স্থানীয় আর্থিক সহায়তায় তাদের বিয়ে হয়। বর্তমানে ওই এলাকায়ই বসবাস করছেন নবদম্পতি।

(গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ঘটনাটি নিয়ে প্রতিবেদন  প্রকাশ করেছিল যমুনা টেলিভিশন।  সামাজিক মাধ্যমে সেই রিপোর্ট ভাইরাল হয়েছিল। আজ যমুনা টেলিভিশনের ৪র্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে অনেক পাঠক জানতে চান, মেয়েটির ভাগ্যে  শেষ পর্যন্ত কী ঘটেছিলো। আমাদের মানিকগঞ্জ প্রতিনিধির সহায়তায় সর্বশেষ তথ্য জানানো হল।)

তখনকার রিপোর্ট দেখুন-

৭ দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে পড়ে আছেন তরুণী

৭ দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে পড়ে আছেন তরুণীযার জন্য ঘর-ধর্ম ছেড়েছেন, সেই প্রেমিক পরিবারসহ লাপাত্তা

Posted by Jamuna Television on Friday, 1 September 2017





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply