গভীর রাত পর্যন্ত চ্যাট! বাজারের কথা বলে স্বামী-সন্তান রেখে উধাও গৃহবধূ

|

ছবি: সংগৃহীত

বিয়ের ১৫ বছর পর স্বামী সন্তান ফেলে বাজারে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে লাপাত্তা হলেন বধূ। স্ত্রীকে ফিরে পেতে স্যোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করছেন স্বামী। পুলিশের সাহায্যও চেয়েছেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হুগলি জেলার রিষড়ায়। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

খবরে বলা হয়, গত ১২ জানুয়ারি সকালে বাজার করার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন কবিতা সিং। তারপর আর ফেরেননি। অনেক খোঁজাখুঁজি করে কোথাও তার সন্ধান মেলেনি। এরইমধ্যে গৃহবধূর স্বামী ধর্মেন্দ্র সিং রিষড়া থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেছেন।

পুলিশ প্রাথমিক তদন্তে অনুমান করছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় কারো সাথে যোগাযোগ ছিল ওই গৃহবধূর। তার সাথেই কোথাও চলে গিয়ে থাকতে পারেন কবিতা সিং।

১৫ বছর আগে কোন্নগর চটকল এলাকার কবিতাকে ভালোবেসে বিয়ে করেন ধর্মেন্দ্র। তাদের ঘরে ১৩ বছরের একটি ছেলে ও ৬ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। রিষড়া এলাকায় একটি ট্রাভেলিং এজেন্সি রয়েছে ধর্মেন্দ্রর। এদিকে স্ত্রী নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন ধর্মেন্দ্র।

তিনি জানান, ৬ বছরের মেয়ে সারা দিন ধরে কেঁদে যাচ্ছে মায়ের জন্য। কী করে সামলাবেন ভেবে পাচ্ছি না। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ত্রীকে ফিরে আসার আবেদনও জানিয়েছেন। তার থেকেই মিলেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।

ধর্মেন্দ্র জানান, দীর্ঘ ১৫ বছরের বিবাহিত জীবনে স্ত্রীর সাথে কোনো অশান্তি হয়নি। তবে কবিতা বেশ কিছুদিন ধরে কারও সাথে অনেক রাত পর্যন্ত চ্যাট করতো। ধর্মেন্দ্রর সন্দেহ কারও প্ররোচনায় পা দিয়ে ঘর ছেড়েছে স্ত্রী। ধর্মেন্দ্রর আবেদন, সন্তানদের মুখের দিকে চেয়ে যেনো স্ত্রী ফিরে আসে। সেক্ষেত্রে স্ত্রী ফিরে এলে তিনি তাকে ঘরে ফিরিয়ে নেবেন।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply