বরগুনার জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের অফিস সহকারী আটক

|

বরগুনা প্রতিনিধি:

বরগুনায় জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের অফিস সহকারী নাজমুল হাসানকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে বরগুনা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম। মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়।

বরগুনা মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের অফিস সহকারী নাজমুল হাসান শতাধিক নারীর কাছ থেকে ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা পাইয়ে দেয়ার কথা বলে বিভিন্ন অংকের টাকা হাতিয়ে নেয় বলে অভিযোগ। বছরের পর বছর ঘুরে টাকা না পাওয়ায় বিভিন্ন সময়ে শালিশ বৈঠক হলেও কোনো সুরাহা পায়নি ভুক্তভোগীরা।

মঙ্গলবার নাজমুল হাসান ও ভুক্তভোগী নারীদের নিয়ে বরগুনা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শালিস বৈঠকে বসলে সেখানে নাজমুল হাসান টাকার কথা অস্বীকার করেন। এ সময় পরিবেশ উত্তপ্ত হয়ে ওঠলে থানায় ফোন দিয়ে নাজমুল হাসানকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়।

নিম্ন আয়ের কর্মজীবী দুগ্ধদায়ী মায়েদের জন্যে সরকারের অন্যতম একটি সামাজিক নিরাপত্তামূলক কার্যক্রমের নাম ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল কর্মসূচি। বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদফতর। শিশুর জন্ম থেকে ৩৬ মাস পর্যন্ত প্রত্যেক মা সর্বমোট আটাশ হাজার টাকা সহায়তা পেয়ে থাকেন। যা দিয়ে মায়ের স্বাস্থ্য এবং শিশুর পুষ্টি সেবা নিশ্চিত করা হয়।

এ সহায়তা বরগুনার পৌর শহরে চলমান থাকলেও নাজমুল হাসান বিভিন্ন ইউনিয়নের নারীদের কাছ থেকে সহায়তা পাইয়ে দেয়ার কথা বলে বিভিন্ন অংকের টাকা আনেন ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply