চট্টগ্রামে দুই সপ্তাহে আক্রান্তের হার বেড়েছে ২৬ গুণ

|

চট্টগ্রামে গত দুই সপ্তাহে করোনা আক্রান্তের হার বেড়েছে প্রায় ২৬ গুণ। শনাক্তের হার ও লক্ষণ দেখে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতিকে ওমিক্রন বলে আশঙ্কা করছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। ইতোমধ্যে বিশেষায়িত কিট দিয়ে করা পরীক্ষায় ৬ জনের শরীরে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে।

চলতি মাসের শুরুর দিকেও চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তের হার ছিল শূন্য দশমিক ৬ শতাংশ। মাত্র ১৬ দিনের ব্যবধানে আক্রান্তের এই হার গিয়ে ঠেকেছে ২৬ শতাংশে।

প্রতিদিন করোনা পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত কেন্দ্রগুলোতে জমা পড়ছে গড়ে দুই হাজার করে নমুনা। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. আব্দুর রব বললেন, লক্ষণ এবং সংক্রমণের এমন হার দেখে অনুমান করা যাচ্ছে এটি ওমিক্রন। আক্রান্তের সংখ্যা বেশি হলেও দুয়েকদিনের মধ্যেই তারা সুস্থ হয়ে ওঠার ফলে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা কম।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষায় ওমিক্রনের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির সহকারী অধ্যাপক ডা. ইফতেখার আহমেদ রানা জানালেন, বিশেষায়িত কিট দিয়ে নমুনা পরীক্ষায় তারা ওমিক্রন আক্রান্ত ৬ জনকে সনাক্ত করেছেন।

ঢাকার পরই এখন সংক্রমণের হটস্পট ধরা হচ্ছে চট্টগ্রামকে। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নাজমুল ইসলাম খান জানান, এমন অবস্থায় হাসপাতালগুলোকে পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত করার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধির ওপর নজর দিচ্ছেন তারা।

তবে সংক্রমণের এমন ভয়াবহতার মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে উদাসীন অনেক মানুষ। গণপরিবহন বা হাটবাজার, সবখানেই মাস্ক ছাড়া ঘোরাফেরা করছে মানুষ।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply