রাশিয়া থেকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কিনছে তুরস্ক

|

উত্তর আটলান্টিক নিরাপত্তা জোটের (ন্যাটো) সব ধরনের উদ্বেগ পাশ কাটিয়ে রাশিয়া থেকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কিনতে যাচ্ছে তুরস্ক। দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেন, ইতিমধ্যে দুই দেশের মধ্যে চুক্তি সই হয়ে গেছে।

পুনর্নির্বাচিত হয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন প্রথম বিদেশ সফরে তুরস্কে যান। মঙ্গলবার দু’নেতার এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানে হয়। ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা চুক্তি ও পুতিনের সফরে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের গভীরতাই প্রকাশ পেয়েছে।

এরদোগান বলেন, এস-৪০০ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা কিনতে আমরা চুক্তিতে পৌঁছেছি। বিষয়টি এখন চূড়ান্ত। চুক্তি হয়ে গেছে। এতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ন্যাটো। সংস্থাটির মতে, কোনো সদস্য রাষ্ট্রের এ ধরনের মিসাইল ব্যবস্থার অধিকারী হওয়া তাদের নীতিমালার পরিপন্থি।

এদিকে, রাশিয়ার সহায়তায় প্রথম পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কাজও শুরু করেছে তুরস্ক। মঙ্গলবার দেশটির মারসিন প্রদেশে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের উপস্থিতিতে শুরু হয় এর নির্মাণ কাজ।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পরমাণু শক্তি সংস্থা রোসাতম এর তত্ত্বাবধানে ২ হাজার কোটি ডলার ব্যয়ে নির্মিত হবে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র। ৪টি ইউনিটে এক হাজার ২শ’ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম হবে এই কেন্দ্র। আধুনিক তুরস্ক প্রতিষ্ঠার শতবর্ষ উপলক্ষে ২০২৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে উৎপাদনে যাবে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply