কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের তর্ক যুদ্ধ

|

কাশ্মীরে ‘স্বাধীনতাকামী’ সশস্ত্র গোষ্ঠী ও সরকারি বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষে এ অবধি ২০ জনের ব্যক্তি অধিক নিহত হয়েছেন, এবং আহত হয়েছেন দুই শতাধিক।

কাশ্মীরের এই ভয়াবহ সংঘর্ষ উত্তাপ ছড়াচ্ছে ভারত ও পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের মধ্যে। টুইট পাল্টা টুইটে সরগরম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার।

সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি মঙ্গলবার এক টুইট বার্তায় লিখেন, “ভারত দখলকৃত কাশ্মীরের অবস্থা আতঙ্কজনক ও বিক্ষুব্ধ। স্বাধীনতাকামী ও দৃঢ়চেতা কণ্ঠরোধ করতে নিপীড়ক শাসন ব্যবস্থা নিরীহদের গুলি করে হত্যা করছে। বিষ্ময় জাগে কোথায় জাতিসংঘ, এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থা, এবং কেন তারা এই রক্তপাত থামাতে এগিয়ে আসছে না।”

কাশ্মীরের নিরপরাধ লোকেরা নিপীড়ক শাসকচক্রের গুলিতে নিহত হচ্ছে, আত্মনিয়ন্ত্রণাধিকার এবং স্বাধীনতার কণ্ঠ রোধ হচ্ছে

আফ্রিদরি এই বক্তব্যকে প্রত্যাখান করেছেন ভারতীয় দলে সাবেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান গৌতম গম্ভীর।

পাল্টা টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, “আমাদের কাশ্মীর ও জাতিসংঘ বিষয়ে শাহিদ আফ্রিদির টুইটের প্রতিক্রিয়া জানতে চেয়েছিল গণ মাধ্যম। কী আর বলবো? শুধু জাতিসংঘকে খুঁজছে আফ্রিদি, তার জড়বুদ্ধির অভিধানে এর অর্থ হচ্ছে অনুর্ধ-১৯। ”

তিনি আরও লিখেছেন, “সংবাদ মাধ্যম নিশ্চিন্তে থাকুন, নো বলে আউট নিয়ে আফ্রিদি উল্লাস করছে।”

গম্ভীরের টুইটের জবাবে আরও একটি টুইট করেছেন আফ্রিদি। এবার তিনি তার ভারতীয় ক্রিকেট ভক্তদের সঙ্গে তোলা একটি ছবিও পোস্ট করেছেন।

তিনি লিখেন, “সবাইকে আমরা সম্মান করি, খেলোয়াড়দের এটাই করা উচিত। কিন্তু কাশ্মীরের নিরাপরাধ জনগণের প্রশ্নে আমরা সেই সম্মানই প্রত্যাশা করি।”

পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের মধ্যে শুধু আফ্রিদি নয়, যিনি একাই কাশ্মীরের পক্ষে টুইট করেছেন। ক্রিকেট থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ইমরান খানও জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনা করে সোমবার টুইট করেছিলেন।

তেহরি-কি-ইনসাফ পার্টির নেতা ইমরান খান বলেন, “ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের নিরীহ মানুষদের বিরুদ্ধে দেশটির বাহিনীর পাশবিকতা ও নিরস্ত্র লোকদের হত্যার তীব্র নিন্দা জানাই। নিজেদের অধিকার প্রশ্নে কাশ্মীরিদের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে পাকিস্তানের জনগণ তাদের পাশে রয়েছে। ভারতীয় আগ্রাসনে বিরুদ্ধে জাতিসংঘ নিরাপত্তার পরিষদের অবশ্যই হস্তক্ষেপ করা উচিত। ”

১৯৪৭ সালে ব্রিটিশদের তাড়িয়ে স্বাধীনতা লাভের পর থেকে ভারত ও পাকিস্তান উভয়েই কাশ্মীরকে নিজেদের ভূখণ্ড বলে দাবি করে আসছে। সেই থেকে ওই অঞ্চলে সব সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চলে আসছে। কাশ্মীর নিয়ে দুই দুইবার যুদ্ধেও জড়িয়েছে দেশ দু’টি।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply