পর্তুগালের বিশ্বকাপের পথ অনেকটাই কঠিন হয়ে পড়েছে: রোনালদো

|

ছবি: সংগৃহীত

টানা ষষ্ঠবারের মতো বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলা পর্তুগালের জন্য অত্যন্ত কঠিন লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন পর্তুগাল ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সুপারস্টার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

কাতার বিশ্বকাপের টিকেট নিশ্চিতের পথে মার্চে প্লে-অফ সেমিফাইনালে তুরস্কের মোকাবেলা করবে ২০১৬ ইউরোপিয়ান বিজয়ী পর্তুগাল। আর এই ম্যাচে জয়ী হতে পারলে ফাইনালের তাদের সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ এবারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন ইতালি।

পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর বিজয়ী রোনালদো বলেছেন বিশ্বকাপে খেলতে না পারলে বিষয়টা খুবই দুঃখজনক হবে। ২০০৩ সালে পর্তুগালের জাতীয় দলে অভিষেক হবার পর থেকে এখনো পর্যন্ত বড় কোনো টুর্নামেন্ট মিস করেননি রোনালদো। ইতোমধ্যেই তিনি চারটি বিশ্বকাপ ও পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলে ফেলেছেন।

৩৬ বছর বয়সী রোনালদো বলেছেন, ব্যক্তিগত জীবনে ও একইসাথে ফুটবলে আমরা অনেক সময় কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাই। কিন্তু পথ যতই কঠিন হোক না কেন নিজেদের মেধা দিয়ে তা পার করে আসি। আমরা জানি আমাদের সামনে কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষা করছে। প্রথম ম্যাচে তুরস্ককে পরাজিত করতে পারলে পরের ম্যাচে আমাদের প্রতিপক্ষ ইতালি। মার্চের ম্যাচগুলোর জন্য আমরা প্রস্তুত। সমর্থকদের জন্যও আমরা কিছু করে দেখাতে চাই।

আগামী ২৪ মার্চ তুরস্ককে আতিথেয়তা দিবে পর্তুগাল। একই দিন আরেক ম্যাচে ইতালির আতিথেয়তা নিবে নর্থ মেসিডোনিয়া। আগামী ২১ নভেম্বর থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত কাতারে অনুষ্ঠিতব্য এবারের বিশ্বকাপে গত দুই ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নের অন্তত একজনের যে খেলা হচ্ছেনা এটা নিশ্চিত।
রোনালদো বলেন, এটাই জীবন। সবকিছুই সবসময় সঠিক ভাবে হবে না। আমাদের সবকিছু মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।

সব ধরনের প্রতিযোগিতায় এবারের মৌসুমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে রোনালদো ২১ ম্যাচে ১৪ গোল করেছেন। ইউনাইটেড বর্তমান প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের সপ্তম স্থানে থাকলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬ ও এফএ কাপের চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply